শিরোনাম
প্রকাশ : ১২ নভেম্বর, ২০১৯ ০৮:৩৯
আপডেট : ১২ নভেম্বর, ২০১৯ ১৩:২৬

তেল-পানির বোতলে ঝাড়ফুঁক দিচ্ছেন কে এই কাঠুরিয়া কবিরাজ?

অনলাইন ডেস্ক

তেল-পানির বোতলে ঝাড়ফুঁক দিচ্ছেন কে এই কাঠুরিয়া কবিরাজ?

তেল-পানি পড়া নিতে হাজারো মানুষের ঢল নেমেছিল কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায়। শনিবার সুখিয়া ইউনিয়নের চর পলাশ গ্রামের মাঠে এ ঘটনা ঘটে। কাঠুরিয়া কবিরাজ সবুজ মিয়া আসবেন বলে মাঠে মঞ্চও তৈরি করা হয় আগে থেকে।

ফুঁক দিয়ে পানি পড়া দিচ্ছেন এই ঘটনা টক অফ দ্য কান্ট্রিতে পরিণত হয় সে দিন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ আলোচনা-সমালোচনার ঝড় ওঠে চায়ের টেবিলেও।

স্থানীয়রা জানান, কবিরাজ সবুজ মিয়ার ঝাড়ফুঁকের পানি খেলে এবং তেল মালিশ করলে সব রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে, মনের সব আশা পূর্ণ হবে—এমন বিশ্বাসে দূর-দূরান্ত থেকে আসা মানুষের ঢল নামে এই মাঠে। কিন্তু কে এই তেল-পানির বোতলে ঝাড়ফুকের কাঠুরিয়া কবিরাজখ্যাত সবুজ মিয়া?

জানা গেছে, ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার রাজৈ ইউনিয়নের পায়লা বেড় গ্রামের মৃত মোহাম্মদ সায়েদ ফকিরের ছেলে সবুজ মিয়া। তার পিতা মৃত সায়েদ ফকিরও কবিরাজি করতেন। পিতার মৃত্যুর অনেক দিন পর পর্যন্ত সবুজ মিয়া বন থেকে কাঠ কেটে জীবিকা নির্বাহ করতেন। ২০১৬ সালের দিকে হঠাৎ একদিন আধ্যাত্মিক শক্তিলাভের অবিশ্বাস্য ও অবাস্তব গল্প সাজান তিনি। সপ্তাহে চার দিন কাঠ কাটেন এবং তিন দিন কবিরাজি করেন। স্বপ্নে ফুঁ দেওয়ার এই তরিকা পেয়েছেন বলে দাবি তার। আর এ ভুয়া শক্তির গল্পকে কাজে লাগিয়ে প্রতারণামূলক কবিরাজি ও ঝাড়ফুঁককে বাড়তি আয়-রোজগারের হাতিয়ার হিসেবে বেছে নেন সবুজ মিয়া। কুসংস্কারাচ্ছন্ন সমাজের অন্ধবিশ্বাসী লোকজন তার ফাঁদে পা দেয়। 

প্রত্যক্ষদর্শীদের কেউ কেউ বলেছেন, যেহেতু এক এক করে বোতলে ফুঁক দেওয়া সম্ভব নয়, তাই মাইকে ফুঁক দেওয়া হয়। গত শনিবার পীর আসার খবরে সকাল থেকে বিভিন্ন স্থান থেকে মানুষ চর পলাশ মাঠে আসতে থাকেন। কেউ পানিভর্তি বোতল, কেউ বোতলে তেল নিয়ে সমবেত হন। বৃষ্টি উপেক্ষা করে হাজারো নারী-পুরুষের ভিড় জমে যায়। এরমধ্যে নারীর সংখ্যাই বেশি ছিল। 

এ ব্যাপারে সুখিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ টিটু জানান, তিনি পীর নন, সাধারণ মানুষের মতই। তার নাম সুবজ। কোরআন ও হাদিসের আলোকে তিনি মানুষকে কিছু উপদেশ দিয়েছেন। প্রায় ২০ মিনিটের মত তিনি সেদিন মঞ্চে অবস্থান করেন। এ সময় পাকুন্দিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রেণুও মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।


বিডি-প্রতিদিন/শফিক/ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য