শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:০৯

হাতের ইশারা আর বাঁশি বাজিয়ে শৃঙ্খলা ফেরানোর চেষ্টা

আড়াই মাস ধরে মামলা বন্ধ

রাহাত খান, বরিশাল

নতুন সড়ক নিরাপত্তা আইন করা হয়েছে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানোর জন্য। কিন্তু বরিশালে হয়েছে উল্টো। গত পয়লা নভেম্বর থেকে সরকার নতুন সড়ক নিরাপত্তা আইন কার্যকরের ঘোষণা দেওয়ার পর থেকে বরিশালের সড়কে বিশৃঙ্খলা আরও বেড়েছে। কারণ নতুন আইনে মামলা দিতে পারছে না বা দিচ্ছে না ট্রাফিক বিভাগ। মামলা কিংবা আর্থিক দ- না দেওয়ায় বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বরিশালের অবৈধ যান ও চালকরা। তবে খুব শিগগিরই নতুন সড়ক নিরাপত্তা আইনে অবৈধ যান ও চালকের বিরুদ্ধে মামলাসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের উপ-কমিশনার মো. খাইরুল আলম। মেট্রোপলিটনের ট্রাফিক বিভাগ সূত্র জানায়, গত বছরের পয়লা জানুয়ারি থেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত ১০ মাসে অবৈধ যান ও চালকদের বিরুদ্ধে ৩১ হাজার ৩৫০টি মামলা করেছে ট্রাফিক বিভাগ। এই মামলার বিপরীতে জরিমানা আদায় হয়েছে ২ কোটি ২৩ লাখ টাকা। গত বছরের প্রথম ১০ মাসে ট্রাফিক আইনে গড়ে মামলা হয়েছে ৩ হাজার ১৩৫টি এবং জরিমানা আদায় হয়েছে ২২ লাখ   ৩০ হাজার টাকা। নাম না প্রকাশের শর্তে বিএমপির একজন ট্রাফিক পরিদর্শক বলেন, তাদের চোখের সামনে দিয়ে হাজারো অবৈধ অটোরিকশা চলছে। জেলায় অনুমোদন পাওয়া শত শত থ্রি হুইলার নগরীর মধ্যে ঢুকে যানজট সৃষ্টি করছে। অনেক চালকের লাইসেন্স নেই। তিনি বলেন, কোনো যান যদি ট্রাফিক পরিদর্শককেও ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় তবে তার বিরুদ্ধে ট্রাফিক আইনে ব্যবস্থা নিতে পারছে না ট্রাফিক বিভাগ।

 সড়কে দাঁড়িয়ে হাত নেড়ে এবং বাঁশি বাজিয়ে শৃঙ্খলা রক্ষার প্রাণান্তকর চেষ্টা চালাচ্ছেন তারা। তবে বিএমপির ট্রাফিক পরিদর্শক বিদ্যুৎ চন্দ্র দে জানান, নতুন আইন বাস্তবায়নের পর গত আড়াই মাসে কয়েকটি মামলা হয়েছে। চালকরা বড় ধরনের অপরাধ করলে তাকে থানায় সোপর্দ করে প্রচলিত আইনে মামলা করা হচ্ছে।

 

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর