শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০২

কুমিল্লায় বাড়ছে ব্যাংকে চুরি

উদ্ধার হয় না টাকা, হদিস নেই আসামির

মহিউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা

কুমিল্লায় বাড়ছে ব্যাংকে চুরি
চৌদ্দগ্রামে গত মঙ্গলবার গ্রিল কেটে ব্যাংকের টাকা নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা

কুমিল্লায় ব্যাংকের টাকা চুরির ঘটনা বাড়ছে। এ নিয়ে মামলা হলেও হদিস মেলে না কোনো আসামির। উদ্ধার হয় না চুরি যাওয়া টাকা। গত আট মাসে কুমিল্লা চৌদ্দগ্রামে কৃষি ব্যাংকের মিয়ার বাজার, পূবালী ব্যাংক নগরীর কান্দিরপাড় শাখার এটিএম বুথ এবং দেবিদ্বারের ধামতী কৃষি ব্যাংকে চুরির ঘটনা ঘটেছে।  ব্যাংকের টাকা চুরির ঘটনার পর জেলা পুলিশসহ প্রশাসনের বিভিন্ন সংস্থা ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও তদন্ত করে। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ থানায় মামলা করলেও ঘটনায় জড়িত আসামিরা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে। জানা যায়, সব শেষ গত মঙ্গলবার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কৃষি ব্যাংক মিয়াবাজার শাখার জানালার গ্রিল কেটে আলমারির তালা ভেঙে ১১ লাখ ১৫ হাজার টাকা চুরি যায়। এ ঘটনায় পরদিন অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা করেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপক সাকিব সালেহীন। এর আগে ১৬ নভেম্বর রাতে পূবালী ব্যাংকের কুমিল্লার প্রধান শাখা কান্দিরপাড় এটিএম বুথের মেশিন থেকে চুরি হয় তিন লাখ ৩০ হাজার টাকা। অত্যাধুনিক যন্ত্রের মাধ্যমে বুথের মেশিন খুলে একজন ব্যক্তি এই টাকা চুরি করে-যা সিসিটিভির ফুটেজে শনাক্ত করা হয়। এ ঘটনার চার দিন পর কোতোয়ালি মডেল থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা করেন শাখার ব্যবস্থাপক মাইনুল ইসলাম। মামলাটি ডিবিতে রয়েছে। ঘটনার ১৫ দিন অতিবাহিত হলেও কোনো আসামিকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। এ ছাড়া গত ২৯ মে দেবিদ্বারে কৃষি ব্যাংকের জানালার গ্রিল কেটে ভল্ট ভেঙে প্রায় ৫ লাখ ৮৮ হাজার টাকা নিয়ে যায় চোরেরা। ঘটনাটি ঘটে উপজেলার ধামতী আলিয়া কামিল মাদ্রাসা কৃষি ব্যাংক শাখায়। ওই ঘটনায়ও এখন পর্যন্ত কাউকে আটক বা চুরি যাওয়া টাকা উদ্ধার হয়নি। ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক শেখ মাহবুব হোসেন জানান, চুরির ঘটনায় দেবিদ্বার থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করছে বলে জানিয়েছে। কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেন, ‘ব্যাংকের চুরির বিষয় নিয়ে আমরা কাজ করছি। আশা করছি দ্রুত সফলতা পাব।’ ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে আরও সচেতন হওয়া প্রয়োজন বলে জানান তিনি।


আপনার মন্তব্য