শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ৩১ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩০ জুলাই, ২০২১ ২৩:০৫

কুমিল্লা অঞ্চলে এক যুগে বন্ধ ১৩ রেল স্টেশন

মহিউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা

কুমিল্লা অঞ্চলে এক যুগে বন্ধ ১৩ রেল স্টেশন
Google News

কুমিল্লা অঞ্চলে গত এক যুগে ১৩টি রেল স্টেশন বন্ধ হয়ে গেছে। স্টেশনগুলো বন্ধ হওয়ায় সংশ্লিষ্ট এলাকার যাত্রীরা পড়েছেন দুর্ভোগে। এগুলোর কোনটিতে আবার ট্রেন থামছে। স্টেশন বন্ধ থাকায় বিনা টিকেটে ভ্রমণ করছেন যাত্রীরা। এতে রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। এদিকে এ অঞ্চলের দুই রুটে কমেছে সাত জোড়া ট্রেন। বেহাল অবস্থা লাকসাম-নোয়াখালী রেল সড়কের। এই রুটে মাত্র এক জোড়া ট্রেন চলাচল করছে। বন্ধ হওয়া স্টেশনগুলো হচ্ছে, লাকসাম-নোয়াখালী রেল সড়কের দৌলতগঞ্জ, খিলা, বিপুলাসার, বজরা ও মাইজদী। লাকসাম-চট্টগ্রাম রেল সড়কের নাওটি। লাকসাম-আখাউড়া রেল সড়কের আলীশ্বর, ময়নামতি ও রাজাপুর। লাকসাম-চাঁদপুর রেল সড়কের শাহতলী, মৈশাদী, বলাখাল ও শাহরাস্তি। এ ছাড়া আরও ৫-৬টি স্টেশন বন্ধ হওয়ার পথে। সূত্র জানায়, বন্ধ স্টেশনের কয়েকটির প্লাটফর্মের মধ্যে এখন ধান মাড়াই ও গরু বাধা হচ্ছে। কোথাও রেল লাইনের ওপর বাজার বসছে। কোথাও দখল হয়ে যাচ্ছে রেলওয়ের সম্পত্তি। এদিকে লাকসাম-চাঁদপুর রেল সড়কে এক দশকে তিন জোড়া ট্রেন কমেছে। এখন এ রুটে চলে দুই জোড়া ট্রেন। লাকসাম-নোয়াখালী রেল সড়কের অবস্থা বেশি বেহাল। এই রুটে বন্ধ হয়েছে বেশি স্টেশন। এ রুটে চার জোড়া ট্রেন বন্ধ হয়েছে। চলে মাত্র এক জোড়া-উপকূল এক্সপ্রেস। ইঞ্জিন ও বগি সংকটে কমেছে ট্রেন। জনবল সংকটের কারণে বন্ধ হয়ে গেছে অধিকাংশ রেল স্টেশন।

অপরদিকে বন্ধ আলীশ্বর, ময়নামতি স্টেশন পুনসংস্কার করা হয়েছে। তবে এগুলো কবে চালু হবে তা নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না কেউ। মনোহরগঞ্জ উপজেলার খিলা রেল স্টেশন এলাকায় সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, স্টেশনটি এক দশক ধরে বন্ধ। সেখানে প্লাটফর্মে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন মালামাল রেখেছেন। অন্যপাশে জুয়া খেলায় ব্যস্ত লোকজন। কোথাও গরু-ছাগল বাধা হচ্ছে, শুকানো হচ্ছে ধান। লাকসামের দৌলতগঞ্জ রেল স্টেশনটির পাশের জায়গা দখল হয়ে গেছে। আলীশ্বর স্টেশন সংলগ্ন বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্ধা দীন মোহাম্মদ বলেন, যোগাযোগের সুবিধার জন্য স্টেশনের পাশে বাড়ি করেছিলাম। লম্বা হুইসেল বাজিয়ে ট্রেন থামতো আর ছাড়তো। যাত্রী উঠানামায় এলাকা সরগরম হয়ে উঠতো। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে স্টেশনটি বন্ধ। শাহরাস্তির গণমাধ্যম কর্মী হাবিবুর রহমান ভুঁইয়া বলেন, শাহরাস্তি গুরুত্বপূর্ণ রেল স্টেশন। এখানে ট্রেন থামে তবে স্টেশন বন্ধ। ফলে সরকার রাজস্ব হারাচ্ছে। খিলা বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম বলেন, খিলা রেল স্টেশন বন্ধ থাকায় ব্যবসায়ী ও স্থানীয় বাসিন্দারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। রেলওয়ে কুমিল্লার ঊর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পথ) লিয়াকত আলী মজুমদার বলেন, স্টেশন মাস্টার ও জনবল সংকটের কারণে স্টেশনগুলো বন্ধ হয়ে গেছে। মাস্টার নিয়োগ হলে পুনরায় চালু হবে। এই অঞ্চলে পুনরায় ট্রেন বাড়ানো এবং বন্ধ স্টেশন চালুর বিষয়ে রেলের চট্টগ্রাম অঞ্চলের বিভাগীয় ব্যবস্থাপক তারেক মোহাম্মদ শামস তুষার বলেন, এ সব সিদ্ধান্ত রেল ভবন নেয়। আমরা শুধু বাস্তবায়ন করি।

এই বিভাগের আরও খবর