শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৪ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৪ জুন, ২০২১ ০১:২৬

সময়োপযোগী বাজেট

আওয়ামী লীগের আনন্দ মিছিল

নিজস্ব প্রতিবেদক

Google News

২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট জনবান্ধব এবং উন্নয়নবান্ধব বলে দাবি করে রাজধানীসহ সারা দেশে আনন্দ মিছিল করেছে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। দলটির নেতা-কর্মীরা বলছেন, এটি সংকটকালীন বাস্তবভিত্তিক সময়োপযোগী বাজেট। গতকাল বিকালে জাতীয় সংসদে বাজেট উত্থাপনের পরই আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। বাজেট-পরবর্তী প্রতিক্রিয়ায় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, আমরা গত একটি বছর করোনা মহামারীর কারণে সারাবিশ্বে অর্থনীতি যখন বিপর্যস্ত সেই করোনা মহামারীর ঘাতককে কাটিয়ে আমাদের অর্থনীতিকে আরও বেগবান, আরও সচল করার জন্য এই বাজেট পেশ করা হয়েছে। তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আমি জানি বিএনপির পক্ষ থেকে বলে দেওয়া হয়েছে বা হবে বাজেট কাল্পনিক। কিন্তু প্রতিবারই দেখা গেছে বাজেট বাস্তবায়নের হার ৯৫ শতাংশের বেশি।

এই করোনা মহামারীর সময়েও চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে বাজেট বাস্তবায়নে সক্ষম হয়েছি। আমাদের রফতানি আয় ও রেমিট্যান্স বৃদ্ধি পেয়েছে। অনেকেই অনেক কথা বলবে। শঙ্কা ও আশঙ্কার কথা বলেন। সেগুলো ভুল ও মিথ্য প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

বাজেট কেমন হয়েছে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন বলেন, এই বাজেট মানুষের কল্যাণের জন্য। সঙ্কট মোকাবিলা করে ঘুরে দাঁড়াবার জন্য বাজেটে সব সেক্টরের প্রতি নজর দেওয়া হয়েছে। শ্রমজীবী মেহনতি মানুষের উন্নয়নে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দ বৃদ্ধি করা হয়েছে। সব কিছু করা হয়েছে মানুষের জন্য।  

রাজধানীতে আনন্দ মিছিল : বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে ২৩ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আনন্দ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ। সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আহমেদ মন্নাফী ও সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবিরের নেতৃত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি নুরুল আমিন রুহুল এমপি, ডা. দিলীপ কুমার রায়, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী মোরশেদ হোসেন কামাল, মিরাজ হোসেন, মহিউদ্দিন আহমেদ মহি, সাংগঠনিক সম্পাদক আখতার হোসেন, গোলাম আশরাফ তালুকদার, গোলাম সরোয়ার কবির, দফতর সম্পাদক মো. রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক এফএম শরিফুল ইসলাম প্রমুখ। বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে আনন্দ শোভাযাত্রা করেছে কৃষক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। এ সময় প্রস্তাবিত বাজেটকে কৃষকবান্ধব গণমুখী আখ্যায়িত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানানো হয়। শোভাযাত্রা পরবর্তী আলোচনা সভায় কৃষক লীগ সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীসহ সরকারের সব স্তরের নেতৃবৃন্দ ও কর্মকর্তাকে গণমুখী বাজেট পেশ করায় ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আনন্দ মিছিল করেছে যুবলীগ। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিলের নেতৃত্বে এ সময় সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট মামুনুর রশীদ, হাবিবুর রহমান পবন, তাজ উদ্দিন আহমেদ, মোয়াজ্জেম হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুর রহমান সোহাগ, প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী, দফতর সম্পাদক মো. মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদসহ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে বাজেটকে স্বাগত জানিয়েছে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ। সভাপতি শেখ বজলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এসএম মান্নান কচি এক বিবৃতিতে ‘গণমুখী’ বাজেট উপস্থাপন করায় প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। বিবৃতিতে তারা বলেন, মহামারী মোকাবিলায় স্বাস্থ্যখাতকে অধিক গুরুত্ব প্রদান ও উন্নয়নশীল রাষ্ট্র থেকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হওয়ার লক্ষ্যমাত্রায় নতুন বাজেট মাইলফলক হয়ে থাকবে এবং দেশের মানুষের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রায় নবদিগন্তের পথচলার সূচনা করবে। বাজেট ঘোষণার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আনন্দ মিছিল ও শোভাযাত্রা করেছে ছাত্রলীগ। কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি সনজিত দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন, ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মেহেদী হাসান, সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের আহমেদ, কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি তিলোত্তমা সিকদারসহ কেন্দ্রীয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণের নেতা-কর্মীরা এতে অংশ নেন। এ সময় যুগোপযোগী ও শিক্ষাবান্ধব বাজেট ঘোষণা করায় বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তারা।