শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ অক্টোবর, ২০১৮ ২২:১১

গোসসা ভাঙাবে পার্ক

ঝর্ণা মনি

গোসসা  ভাঙাবে  পার্ক

কারও ওপর রাগ করেছেন? কিংবা অভিমান? কাজে মন দিতে পারছেন না কোনো কিছুতেই? তাহলে নিশ্চিন্ত মনে চলে যেতে পারেন রাজধানীর ওসমানী উদ্যানের গোসসা নিবারণী পার্কে। আপন হোক বা পর, যার ওপরই রাগ করুন না কেন- সেখানে জলাধারের পাশে বসে পুরনো দিনের গান শোনা বা নতুন দিনের নানা মিউজিক আপনার মনকে সতেজ করবে। এই পার্কের নির্মাণ কাজ আগামী বছরের জুনের মধ্যে শেষ হবে। ওসমানী উদ্যানের ২৯ একর জায়গার ওপর প্রায় ৫৮ কোটি টাকা ব্যয়ে এই পার্ক নির্মাণের কাজ চলছে। ৮ মাসের মধ্যে ৮০ শতাংশ কাজ শেষ করার টার্গেট নিয়ে এগিয়ে চলছে জলাধার, আলাদা আলাদা বসার জোন, বাচ্চাদের জন্য বিশেষ জোন তৈরির কাজ। এ ছাড়া চা, কফি, স্যান্ডউইচ খাওয়া, ওয়াই-ফাই জোন, ফুড কর্নার, বড় স্কিনে টিভি দেখার ব্যবস্থা থাকবে। এ ব্যাপারে ডিএসসিসি মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেন, নাগরিকদের নিজেদের মধ্যে অনেক সময় মান-অভিমান, গোসসা হয়ে থাকে। এই পার্কে যখন মানুষ আসবে, স্বাভাবিকভাবে তাদের ভালো লাগবে, উত্ফুল্ল লাগবে। এখানকার যেসব আয়োজন, সেগুলো স্বাভাবিকভাবেই মানুষের গোসসা বা রাগ কমিয়ে দেবে। এই চিন্তা থেকেই এটাকে ‘গোসসা নিবারণী পার্ক’ নাম দেওয়া হয়েছে। পার্কে নগর মিউজিয়াম ও লাইব্রেরি থাকবে। খেলা দেখা বা মিউজিকও শোনা যাবে। পানি, প্রকৃতি আর আধুনিকতার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে এটি নির্মাণ করা হচ্ছে। পার্কের ভিতর একটি লেক তৈরি করা হবে, যেখানে সারা বছর পানি থাকবে। আশপাশের এলাকার ড্রেনেজ ব্যবস্থা এমনভাবে করা হবে যাতে বর্ষার সময় অতিরিক্ত পানি এই লেকে চলে আসতে পারে। পুরো পার্কে কোনো দেয়াল থাকবে না। যখন তখন পার্কে প্রবেশ করা যাবে। স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন বলেন, এই পার্কের ধারণা বিশ্ব গণমাধ্যমে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে এ নিয়ে সংবাদ পরিবেশিত হয়েছে।  শুধু ডিএসসিসিতেই নয়, অন্য সিটিতেও অনুরূপ পার্ক তৈরি হওয়া প্রয়োজন।


আপনার মন্তব্য