শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ ডিসেম্বর, ২০২০ ২৩:৫১

তুষিমণির সবুজ টিয়া

সারমিন ইসলাম রত্না

তুষিমণির সবুজ টিয়া

বাবা-মায়ের একমাত্র মেয়ে তুষিমণি।  বয়স মাত্র পাঁচ বছর। ভীষণ দুষ্টু আর ভীষণ মিষ্টি। ওর বিশেষ একটা দুষ্টুমি হলো - কলিংবেল বাজলেই দরজা খুলে দেয়া। বাবার সঙ্গে খেলা করছিল তুষিমণি। খেলতে খেলতে হঠাৎ কোলে উঠে বলল, বাবা তুমি আমাকে জন্মদিনে কি উপহার দেবে?  অনেক সুন্দর একটা উপহার দেব মামণি। তুমি চমকে উঠবে।

তুষিমণি অপেক্ষা করতে লাগল। অবশেষে চলে এলো তুষিমণির জন্মদিন। তুষিমণি গোলাপি রঙের জামা পরেছে। চুলে দুটো ঝুটি বেঁধেছে। ঝুটিতে গোলাপি রঙের ক্লিপ লাগিয়েছে। তুষিমণিকে খুব সুন্দর লাগছে। তুষিমণি অস্থির। বাবা এখনো আসছে না কেন? এই ভাবতেই টুং টাং টুং কলিংবেল বেজে উঠল। তুষিমণি দৌড়ে গেল। দরজা খুলেই মন খারাপ। আঙ্কেল এসেছেন। ভেবে ছিলাম বাবা এসেছেন। আঙ্কেল একটি প্যাকেট বাড়িয়ে বললেন, শুভ জন্মদিন মামনি। তুষিমণি মিষ্টি করে হাসলো। অমনি কলিংবেল বেজে উঠল। তুষিমণি দরজা খুলেই অবাক!

সাদা আলখাল্লা পরা একজন মানুষ। মুখে অদ্ভুত মুখোশ। ডান হাতে একটি খাঁচা। খাঁচার ভেতর একটি সবুজ টিয়ে। সবুজ টিয়ে বলল, শুভ জন্মদিন। আমাকে ভয় পেও না। আমি তোমার জন্মদিনের অতিথি। তুষিমণি কী ভেবে মানুষটাকে ভেতরে নিয়ে এলো। আম্মু আঁতকে উঠে বললেন, কাকে নিয়ে এলে তুষিমণি?  আম্মু উনি আমার জন্য এই পাখিটা উপহার এনেছেন। উনি কে? তুষিমণি চোখ দুটো কপালে তুলে বলল, আশ্চর্য আমি তো জানতেই চাই নি উনি কে? আম্মু ধমক দিয়ে বললেন, এই কে আপনি? আলখাল্লা পরা মানুষটি চুপচাপ। বলুন কে আপনি? মানুষটি তখনও চুপচাপ। অতিথিরা ছুটে এলো। সবার একই প্রশ্ন - কে আপনি?  কোথা থেকে এসেছেন? তুষিমণি ভয়ে কাঁপতে লাগল। ওর ভয় পাওয়া দেখে মানুষটি হো হো করে হেসে উঠল।

তুষিমণি ছুটে গিয়ে মানুষটিকে জড়িয়ে ধরল। বাবা তুমি!  তুমি দুষ্টুমি করছিলে এতক্ষণ? বাবা  মুখোশ খুলে বললেন, হ্যাঁ আমি। শুভ জন্মদিন মামণি। বলেছিলাম না তোমাকে চমকে দেব। তাই চমকে দিলাম। ওহ বাবা আমি তো ভয়ই পেয়ে গিয়েছিলাম। বাবা তুষিমণিকে আদর করে দিয়ে বললেন, মামনি কলিংবেল বাজলেই দরজা খুলে দেবে না। কে এসেছে গ্লাসের ভেতর দিয়ে আগে দেখে নেবে। না হলে অচেনা কেউ ঢুকে পড়লে বিপদ হবে। তুষিমণি বলল, হুম বুঝতে পেরেছি।  তুমি আমার দুষ্টু বাবা, মজার বাবা। তুষিমণি টিয়ে পাখি খাঁচা থেকে মুক্ত করে দিল। সবাই খুশিতে হাততালি দিয়ে উঠল।


আপনার মন্তব্য