প্রকাশ : শুক্রবার, ২৮ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ মে, ২০২১ ২৩:৫৮

পরীর জনসচেতনতা

রণজিৎ সরকার

পরীর জনসচেতনতা
Google News

পাপিয়া ছোট্ট মেয়ে। ও ছবি আঁকে। পরীর ছবি। পরীর ডানায় রং করছে। লাল রং। পরীর ছবি আঁকা শেষ। ছবি আঁকার খাতাটা বন্ধ করে ঘুমিয়ে পড়ল পাপিয়া।

রাতে স্বপ্নে পাপিয়াকে পরী বলল, ‘তুমি কেমন আছ?’

‘আমি ভালো আছি। তুমি কেমন আছ?’

পরী বলল, ‘আমি ভালো না।’

পাপিয়া বলল, ‘ভালো না কেন?’

পরী বলল, ‘এই যে ছবি আঁকার খাতা বন্ধ করে রেখেছ। আমি খাতায় বন্দি। উড়তে পারছি না।’

পাপিয়া বলল, ‘ও, তুমি পরী।’

‘হ্যাঁ। আমি পরী।’

‘আ"ছা, তুমি কি আমার ইচ্ছাপূরণ করতে পারবে?’

‘কী ইচ্ছা? বলো।’

‘তুমি তো আকাশে ওড়ো। আকাশে ওড়া বাদ দিয়ে আমার সাথে একটু হাঁটবে?’

পরী বলল, ‘না না, আমি তো হাঁটি না। আকাশে উড়ে উড়ে বেড়াই। তুমি কি আমাকে উড়তে দেখ না? পরীদের ওড়ার কথা কখনো শোনোনি।’

পাপিয়া বলল, ‘তুমি রেগে যাচ্ছ কেন? তুমি কি আমার সাথে একটু হাঁটবে?’

পরী বলল, ‘আমি হাঁটব কেন? তুমি কোথায় যাবে বলো। আমি তোমাকে উড়ে নিয়ে যাব। হেঁটে যাব না।’

‘না আমি হেঁটে যাব। তোমার সাথে হেঁটে যাওযার খুব ইচ্ছা।’

‘তুমি কি পাগল হয়েছে? আমি তোমাদের এই নষ্ট পরিবেশে হেঁটে যাব? কখনো হেঁটে যাব না। তোমরা আগে পরিবেশ ঠিক করো। তারপর আমার সাথে হেঁটে যাওয়ার কথা বলো।’

‘আচ্ছা, তুমি বলো। আমি একা সচেতন হয়ে কি পরিবেশ রক্ষা করতে পারব? আমার মনে হয় পারব না। সবার সচেতন হতে হবে। তবেই না আমাদের পরিবেশ রা করা সম্ভব।’

‘তুমি ঠিক বলেছ। আমাদের সচেতন হওয়া যে কত জরুরি তা বলে বোঝাতে পারব না।’

‘তুমি পরিবেশ ঠিক করো। তারপর হাঁটব।’

‘আমি তো করিই। তবে তুমি পরী। তুমি এক কাজ করো সবাইকে ঘুমের মাঝে সচেতন হওয়ার স্বপ্ন দেখাও।’

‘দেখি কী করা যায়।’ এই বলে পরী চলে গেল।

পাপিয়ার ঘুম ভেঙে গেল।

পাপিয়া খাতায় আঁকা পরীটা ওপেন করে রাখল। পরদিন স্কুলে গিয়ে বন্ধুদের পরিবেশ সম্পর্কে বলতে লাগল। সবাই শুনল। একদিন রাতে পরী এসে বলল, ‘পাপিয়া. এত দিন তুমি বেশ ভালো কাজ করেছ। সবাইকে সচেতন করতে হবে। তোমার নিজ প্রচেষ্টায় ভালো করেছ।’

‘ধন্যবাদ তোমাকে। তাহলে চলো আমি আর তুমি এখন হেঁটে বেড়াই।’

পাপিয়ার কথামতো পরী হেঁটে যেতে লাগল শহরে। পরীর হাঁটা দেখতে হাজার হাজার মানুষ পথে নেমে পড়ল। এই সুযোগে পরী আর পাপিয়া জনসচেতনতামূলক কথা প্রচার করতে লাগল।