Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ নভেম্বর, ২০১৯ ২১:৫৬

পদে পদে ভাঙা হয় সড়ক আইন

জিন্নাতুন নূর

পদে পদে ভাঙা হয় সড়ক আইন
ছবি : জয়ীতা রায়

সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮-এর কার্যকরণের প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেলেও রাজধানীর সড়কগুলোতে এখনো পদে পদে ভাঙা হচ্ছে এই আইন। সরেজমিন ঘুরে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় প্রাইভেট গাড়ির চালক, মোটরসাইকেল চালক ও বাসের চালকদের বিভিন্নভাবে নিয়ম ভঙ্গের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট আইনটি ভাঙতে দেখা যায়। যার অর্থ দাঁড়ায় এ ব্যাপারে এখনো চালকদের মধ্যে পর্যাপ্ত সচেতনতা তৈরি হয়নি।  আইন ভাঙার ক্ষেত্রে এগিয়ে থাকতে দেখা যায় মোটরসাইকেল চালক ও এর আরোহীদের। রাজধানীর মিরপুর, মহাখালী ও বনানী এলাকা ঘুরে দেখা যায়, মোটরসাইকেল চালকরা মাথায় হেলমেট পরলেও তাদের সঙ্গের আরোহীরা বিশেষ করে চালকের পেছনে বসে থাকা মেয়ে যাত্রীদের মাথায় অনেকেরই হেলমেট দেখা যায়নি। এর মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ইউনিফর্ম পরিহিত মেয়ে শিক্ষার্থীকেও হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেল চড়তে দেখা যায়। অথচ নতুন আইনে হেলমেট না পরার অপরাধে ৩ মাসের কারাদ- ও ১০ হাজার টাকার জরিমানা করার বিধান আছে।   এক মোটরসাইকেল চালক গত মঙ্গলবার বেলা ২টায় রাজধানীর কালশী চৌরাস্তার মোড়ে বসানো কংক্রিটের রোড ডিভাইডার নিজেই সরিয়ে অবৈধভাবে ইউটার্ন নেন। তিনি এমন কেন করেছেন তা জানতে চাইলে কোনো উত্তর না দিয়েই সজোরে মোটরসাইকেল চালিয়ে চলে যান। আবার উল্টোপথেও গাড়ি চালাতে দেখা গেছে মোটরসাইকেল চালকদের। মাটিকাটা এলাকায় বেশ কয়েকজন চালক শর্টকার্টে গন্তব্যে যাওয়ার জন্য উল্টোপথেই মোটরসাইকেল চালান। উল্টোপথে গাড়ি চালানোর অপরাধে একজনকে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা জরিমানা এবং তিন মাসের কারাদ- দেওয়ার বিধান রয়েছে নতুন আইনে।   এ ছাড়া প্রাইভেট কার চালকদের অনেককেই সিটবেল্ট না বেঁধে গাড়ি চালাতে দেখা যায়। অথচ নতুন আইনে এই আইন ভাঙার অপরাধে একজনকে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা ও এক মাসের কারাদ- দেওয়ার বিধান রয়েছে। এই চালকদের মধ্যে অনেককেই আবার গাড়ি চালানোর সময় মোবাইল ফোনে কথা বলতে দেখা যায়। নতুন আইনে এ জন্য একজন চালককে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা এবং ১ মাসের কারাদ- দেওয়ার বিধান রয়েছে।

এর বাইরে নতুন আইন কার্যকর করার পর রাজধানীর সড়কগুলোতে বেশির ভাগ গাড়ির চালকদের উচ্চ শব্দে অপ্রয়োজনীয় হর্ন বাজাতে দেখা যায়। অনেক চালককে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালাতে দেখা যায়। নগরীর বাসগুলোতে ভাড়ার তালিকা মূল্য প্রদর্শনের কথা থাকলেও তা নগরীর বাস কোম্পানিগুলোকে মানতে দেখা যায়নি। অনেকে আবার ট্রাফিক সংকেতও অমান্য করে গাড়ি চালান। নগরীতে চলাচলকারী বাসগুলোর বেশির ভাগই লক্কড়ঝক্কড়। এই বাসগুলোর কয়েকটি থেকে অনবরত কালো ধোঁয়া বের হতে দেখা যায়। আর এ অপরাধে নতুন আইনে শাস্তির উল্লেখ আছে।


আপনার মন্তব্য