শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৫ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ অক্টোবর, ২০১৫ ০১:১১

পরজীবী সংক্রমণের চিকিৎসায় নোবেল জয়

পরজীবী সংক্রমণের চিকিৎসায় নোবেল জয়

এ বছর চিকিৎসায় নোবেল পেয়েছেন তিন বিজ্ঞানী। পরজীবীর আক্রমণজনিত সংক্রমণের চিকিৎসা আবিষ্কার করে তারা এ বছর চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল পেয়েছেন। তারা হলেন- আইরিশ বংশোদ্ভ‚ত উইলিয়াম ক্যাম্পবেল, জাপানের সাতোশি ওমুরা ও চীনের ইউইউ তু। সুইডেনের ক্যারলিনস্কি ইনস্টিটিউটের নোবেল অ্যাসেম্বলি চিকিৎসা বিজ্ঞানে এ বছরের নোবেল পুরস্কার জয়ী তিনজনের নাম ঘোষণা করে। ক্যাম্পবেল ও ওমুরা অ্যাভারমেকটিন নামের নতুন ওষুধ আবিষ্কার করেন। এটি ‘রিভার ব্লাইন্ডনেস’ ও ‘লিমফেটিক ফাইলেরিয়াসিস বা গোদ’-এর প্রাদুর্ভাব রাতারাতি কমিয়ে আনতে সক্ষম। পরজীবী সৃষ্ট অন্যান্য রোগের বিরুদ্ধে লড়াইয়েও এটি কার্যকর।

অন্যদিকে, তু আবিষ্কার করেন আর্টেমিসিনিন নামের এক ওষুধ। এটি ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত রোগীদের মৃত্যুর হার উল্লেখযোগ্য সংখ্যায় কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে। তিনি এ ওষুধ আবিষ্কার করেন চীনের প্রাচীন আয়ুর্বেদিক ওষুধের ভিত্তিতে।

নোবেল অ্যাসেম্বলির জুরিরা জানায়, কেঁচোকৃমি জাতীয় পরজীবীর আক্রমণজনিত সংক্রমণের চিকিৎসা আবিষ্কার করায় উইলিয়াম ক্যাম্পবেল ও সাতোশি ওমুরা এবং ম্যালেরিয়ার প্রতিষেধক আবিষ্কার করায় ইউইউ তুকে এ বছর নোবেল পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। রাউন্ডওয়ার্ম প্যারাসাইটিস নামে জীবাণুর সংক্রমণ রুখতে সক্ষম একটি থেরাপি আবিষ্কারের জন্য ক্যাম্পবেল এবং ওমুরাকে নোবেল পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে। এ ছাড়া ম্যালেরিয়ার সংক্রমণ প্রতিরোধী একটি থেরাপি আবিষ্কারের জন্য ইউইউ তুকে এই পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে।

নোবেল পুরস্কার কমিটি জানিয়েছে, এই তিন বিজ্ঞানীর কাজ কোটি কোটি মানুষের জীবনই পাল্টে দিয়েছে। যারা এসব প্যারাসাইটজনিত সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছেন। সবচেয়ে বড় কথা, এসব মানুষের বেশির ভাগই বাস করেন পৃথিবীর দরিদ্রতম দেশগুলোতে।

তিন বিজ্ঞানীর মধ্যে নোবেলের অর্ধেক পুরস্কার পাবেন ক্যাম্পবেল ও ওমুরা। ‘রাউন্ডওয়ার্ম প্যারাসাইট’-এর সংক্রমণ প্রতিরোধে থেরাপি আবিষ্কার করেছেন এ দুই বিজ্ঞানী। আর পুরস্কারের বাকি অর্ধেক পাবেন তু। ম্যালেরিয়া প্রতিরোধে থেরাপি আবিষ্কার করেছেন তিনি।


আপনার মন্তব্য