শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:২০

প্রধানমন্ত্রী দেখলেন তিন ট্যুরিজম পার্কের মহাপরিকল্পনা

প্রতিদিন ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রী দেখলেন তিন ট্যুরিজম পার্কের মহাপরিকল্পনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কক্সবাজার জেলায় নির্মাণাধীন তিনটি স্পেশাল ট্যুরিজম পার্ক (বিশেষ পর্যটন উদ্যান) যথাক্রমে মহেশখালীর সোনাদিয়া ইকো-ট্যুরিজম পার্ক, টেকনাফ উপজেলায় নাফ ট্যুরিজম পার্ক (এনএএফ) ও সাবরং ট্যুরিজম পার্কের মহাপরিকল্পনা অবলোকন করেছেন। বাসস।

গতকাল সকালে তাঁর তেজগাঁওয়ের কার্যালয়ে এ মহাপরিকল্পনা দেখার সময় প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজার সমুদ্রের তীরে উচ্চ-স্থাপনা নির্মাণ না করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। উল্লেখ্য, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষকে (বেজা) এ পার্ক স্থাপনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। অবলোকন অনুষ্ঠানে বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী তিনটি মহাপরিকল্পনার বিশদ বর্ণনা উল্লেখ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া সর্বশেষ নির্দেশনা অনুযায়ী আগামী এক মাসের মধ্যে এ পরিকল্পনা চূড়ান্ত করা হবে। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. আহমদ কায়কাউস, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজিবিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক জুয়েনা আজিজ, পিএমও সচিব তোফাজ্জল হোসেন মিয়া ও প্রেস সচিব ইহসানুল করিম উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) সাবেক অধ্যাপক খায়রুল আনাম অনুষ্ঠানে সাবরং ও নাফ ট্যুরিজম পার্কের মাস্টারপ্ল্যানের বিভিন্ন উল্লেখযোগ্য দিক উপস্থাপন করেন। অন্যদিকে বালাকৃষ্ণাণ সুরেশ মাহিন্দ্র ভিডিও প্রেজেন্টেশনের সাহায্যে সোনাদিয়া ইকো ট্যুরিজম পার্কের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দিক তুলে ধরেন। প্রধানমন্ত্রী ভূমিকম্প, ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসের মতো দুর্যোগসহনশীল করে ট্যুরিজম পার্কের বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণের জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতকে বিশ্বের সর্ববৃহৎ বালুময় সমুদ্রসৈকত আখ্যায়িত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই ৮০ মাইল দীর্ঘ সমুদ্রসৈকত বিশ্বের অন্যতম সুন্দর একটি পর্যটন কেন্দ্র। তিনি সাবরং ট্যুরিজম পার্কটি কেবল বিদেশিদের জন্য নির্মাণের নির্দেশনা দেন। প্রয়োজনীয় সব সুযোগ-সুবিধাসংবলিত করে আন্তর্জাতিক মানসম্পন্নভাবে এ পার্কটি নির্মাণে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়ে বলেন, এটি এমনভাবে নির্মাণ করতে হবে যাতে অন্যান্য দেশের পর্যটকরা এর প্রতি আকৃষ্ট হন এবং প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে এখানে আসেন। শেখ হাসিনা আগামী তিন বছরের মধ্যে নাফ ট্যুরিজম পার্কের নির্মাণকাজ সম্পন্ন করার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেন, যাতে করে তিনি নিজে এর উদ্বোধন করতে পারেন। তিনটি ট্যুরিজম পার্কে আরও নানারকম সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করার বিষয়েও তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা প্রদান করেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর