শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ৪ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:৩৯

লকডাউনের খবরে ঢাকা ছাড়ছে মানুষ বাজারে ভিড়

নিজস্ব প্রতিবেদক

Google News

লকডাউনের খবরে ঢাকা ছাড়ছে মানুষ। রাজধানীর বাজারগুলোয় ভিড় বেড়েছে ক্রেতাদের। করোনা সংক্রমণ আশঙ্কাজনক হারে বাড়তে থাকায় আগামী সোমবার সারা দেশে এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন দিতে যাচ্ছে সরকার। তাই এখন বাড়ি না গেলে রাজধানীতে আটকে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আগেভাগে অনেকই বাড়ি চলে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। অনেকই গতকাল ঢাকা ছেড়েছেন। এ জন্য লকডাউন ঘোষণার পর বাস টার্মিনালগুলোয় ঘরমুখো মানুষের উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে। অনেকই আজ-কালের জন্য টিকিট কিনে রাখছেন।

সরেজমিন দেখা গেছে, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে বাস, সিএনজি, রিকশায় মহাখালী বাস টার্মিনালে যাচ্ছেন ময়মনসিংহ, জামালপুর, শেরপুরসহ উত্তরাঞ্চলের যাত্রীরা। এইকভাবে সায়দাবাদ, গাবতলী বাস টার্মিনালেও ঘরমুখো মানুষের ভিড় দেখা গেছে। নির্ধারিত ভাড়া দিয়ে টিকিট কেটে নিজ গন্তব্যের বাসে উঠছেন তারা। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়েন শফিক। লকডাউন ঘোষণার পরপরই ব্যাগ গুছিয়ে তিনি গাবতলী বাসস্ট্যান্ডে চলে আসেন। যাবেন রংপুরের পীরগঞ্জে। তিনি বলেন, ‘দুটি টিউশনি করে ঢাকা শহরে নিজের খরচ চালাই। কিন্তু লকডাউনে সেই টিউশনিতে যাওয়া সম্ভব হবে না। তাই আগেভাগে বাড়ির পথে রওনা দিয়েছি।’

লকডাউনের খবরে বাজারে ভিড় : নতুন করে আগামী এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন দিতে যাচ্ছে সরকার। এ খবরে গতকাল দুপুর থেকে রাজধানীর বাজারগুলোয় ভিড় বেড়ে যায় ক্রেতাদের। পিঁয়াজ, রসুন, আদা, আলুসহ বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কিনতে দোকানে দোকানে ভিড় করেছেন ক্রেতারা। এদিকে রমজান আসছে বলে কিছু কিছু পণ্যের দাম বাড়ছিল, এবার লকডাউনের ঘোষণা আসার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আরও অস্থির হয়ে ওঠে নিত্যপণ্যের বাজার। সরকারের কোনো হুমকি-ধমকি কাজে আসেনি। স্বভাবগতভাবেই এক শ্রেণির ক্রেতার যেমন ভিড় লেগেছে বাজারসহ পাড়ামহল্লার দোকানে, সেই সুযোগটি লুফে নিচ্ছে অসাধু ব্যবসায়ীরাও। এখন চলছে চাল, ডাল, তেল, পিঁয়াজসহ নিত্যপণ্য কেনাকাটার ধুম। লকডাউন শুরু হলে সব কিছু বন্ধ হয়ে যাবে- এ আশঙ্কায় নিত্যপণ্য মজুতের যেন প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে।

বিক্রেতারা বলছেন, দুপুর থেকেই ক্রেতারা শুকনো পণ্য- পিঁয়াজ, আলু, ডিম বেশি করে কেনা শুরু করেছেন। বর্তমানে পণ্যগুলোর দাম তুলনামূলকভাবে কম রয়েছে। ক্রেতারা যেভাবে পণ্য কিনতে হুমড়ি খেয়ে পড়েছেন, তাতে যেকোনো মুহূর্তে এসব পণ্যের দাম বেড়ে যেতে পারে। তবে ক্রেতারা অস্বাভাবিক আচরণ না করলে দাম বাড়ার তেমন সম্ভাবনা নেই।

একজন ব্যবসায়ী জানান, লকডাউনের খবর ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই পিঁয়াজ, আলু বিক্রি বেড়ে গেছে। তবে দাম বাড়েনি। আগের মতোই পিঁয়াজের কেজি ৩০ টাকা এবং আলুর কেজি ২০ টাকা বিক্রি করেছি। তবে ক্রেতাদের অভিযোগ লকডাউনের খবরে অনেক বিক্রেতা পণ্যের দাম বেশি রাখছেন।