শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১৪ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৩ জুন, ২০২১ ২৩:৫৩

চীনে আরও ২৪ ধরনের নতুন করোনাভাইরাস!

♦ দুটো হুবহু কভিড-১৯ ♦ বাদুড় থেকে ছড়ানোর আশঙ্কা

চীনে আরও ২৪ ধরনের নতুন করোনাভাইরাস!
Google News

করোনাভাইরাসের দাপটে বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। কিন্তু তার উৎপত্তি এখনো অজানা। সম্প্রতি করোনাভাইরাসের উৎপত্তি নিয়ে আবার তদন্তের দাবি উঠছে। এর মধ্যেই চীনের গবেষকরা নতুন ধরনের করোনাভাইরাস শনাক্ত করার দাবি করেছেন। যা কিনা বাদুড় থেকেই ছড়ানোর আশঙ্কা।

মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএনের খবর অনুযায়ী, নতুন যে ভাইরাসগুলোর সন্ধান পাওয়া গেছে, এর মধ্যে জিনগত দিক থেকে কোভিড-১৯-এর সঙ্গে একটি ভাইরাসের বেশ মিল রয়েছে। সম্প্রতি জার্নাল সেল বৈজ্ঞানিক সাময়িকীতে প্রকাশিত সেই রিপোর্টে চীনের শ্যানডং বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা বলেন, ‘সবমিলিয়ে আমরা বিভিন্ন বাদুড় প্রজাতির দেহে ২৪টি নোভেল করোনাভাইরাসের জিনকে একত্রিত করেছি। এর মধ্যে আছে করোনাভাইরাসের সার্স-কোভ-২  প্রজাতির জিনও।’ তারা জানান, এ গবেষণার জন্য ২০১৯ সালের মে থেকে গত বছরের নভেম্বর পর্যন্ত বনে থাকা বাদুড়দের থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। তারপর বাদুড়ের মল, মূত্র পরীক্ষা করা হয়েছিল। বাদুড়ের মুখ থেকে লালারসও সংগ্রহ করেছিলেন গবেষকরা। চীনের গবেষকদের মতে, একটি ভাইরাস জিনগতভাবে সার্স-কভ-২ এর সঙ্গে খুব মিল রয়েছে। সার্স-কভ-২ একমাত্র করোনার   ভাইরাস যা সারা বিশ্বে সর্বনাশ ডেকে এনেছে। স্পাইক প্রোটিন ছাড়া এটির গঠন একই রকম। গবেষণাপত্র চীনের গবেষকরা দাবি করেছেন, বাদুড়ের মাধ্যমে এই ভাইরাস দ্রুত ছড়ায়। নতুন ধরণের করোনারভাইরাস আবিষ্কার এমন এক সময়ে সকলের সামনে এসেছে, যখন বিশ্বব্যাপী বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নেতৃত্বে কোভিড -১৯ এর উদ্ভব সম্পর্কে নতুন করে তদন্তের দাবি করা হচ্ছে। আমেরিকাসহ জি ৭-এ অন্তর্ভুক্ত দেশ এই বিষয়ে তদন্তের দাবি তুলেছে। চীনের উহান শহরে প্রথম করোনার সংক্রমণের খবর পাওয়া যায়।  তারপর প্রায় দেড় বছর হয়েছে, এখনও জানা যায়নি কোথায় এই ভাইরাসের উৎপত্তি। বিজ্ঞানীরাও দাবি করছেন যে উহান ল্যাব থেকে করোনার ফাঁস হওয়ার দাবিগুলিও আরও তদন্ত করা উচীত এবং সত্যটি সন্ধান করা উচীত।