শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৭:১৩

জন্ম নিবন্ধন জালিয়াতি করে মেয়ের বিয়ের আয়োজন, বাবা-মায়ের আর্থিক দণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

জন্ম নিবন্ধন জালিয়াতি করে মেয়ের বিয়ের আয়োজন, বাবা-মায়ের আর্থিক দণ্ড

বরিশালের বাবুগঞ্জের দোয়ারিকা গ্রামে জন্ম নিবন্ধন জালিয়াতি করে কিশোরী কন্যার বিয়ের আয়োজন করায় তার বাবা ও মাকে ৪০ হাজার টাকা আর্থিক দণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সাথে ওই কন্যার ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত তাকে বিয়ে না দেয়ার মুচলেকা আদায় করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সোমবার রাতে বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আমীনুল ইসলামের ভ্রাম্যমান আদালত এই দণ্ড দেন।

জেলা প্রশাসনের মিডিয়া সেল সূত্র জানায়, দোয়ারিকা গ্রামের মো. আ. ছত্তার হাওলাদার ও রেবা বেগম দম্পতি তাদের কিশোরী কন্যা মোসা. মুনিয়া আক্তারের (১৬) বিয়ের আয়োজন করে। বিয়ের অনুষ্ঠানে কয়েক শ’ মেহমান দাওয়াত দেয়া হয়। খবর পেয়ে বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আমীনুল ইসলাম সেখানে অভিযান চালায়। ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিয়ের কনে মুনিয়া আক্তারের জন্ম নিবন্ধন দেখতে চাইলে তার অভিভাবকরা একটি জাল জন্ম নিবন্ধন প্রদর্শন করেন তার বাবা-মা। ভ্রাম্যমাণ আদালত অনলাইনে যাচাই করে ওই জন্ম নিবন্ধনের কোন অস্তিত্ব পায়নি।

পরে দোষ স্বীকার করে কনের বাবা-মা ভ্রাম্যমাণ আদালতকে জানান অপ্রাপ্তবয়স্কা কন্যা মুনিয়া আক্তারকে বাল্য বিয়ে দেয়ার উদ্দেশ্যে তারা জাল জন্ম নিবন্ধন সংগ্রহ করেছেন।

এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন, ২০১৭ অনুযায়ী মো. আ. ছত্তার হাওলাদার ও রেবা বেগমকে ২০ হাজার টাকা করে মোট ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। একই সাথে ওই কন্যার ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত তাকে বিয়ে না দেয়ার মুচলেকা আদায় করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। 


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর