শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:২৬

নারীকে বাদ দিয়ে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়

ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মনে করেছিলেন জনসংখ্যার অর্ধেক নারীকে বাদ দিয়ে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। একটি সমতাভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে হলে নারী উন্নয়ন গুরুত্বপূর্ণ। তাই তিনি নারী উন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিলেন। যুদ্ধ বিধ্বস্ত বাংলাদেশে নারীদের মর্যাদা দান করে প্রথম দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলেন। গতকাল রাজশাহী জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ ২০১৯ শীর্ষক বিভাগীয় পর্যায়ের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা ভার্চুয়াল মাধ্যমে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের উদ্যোগে রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয় সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির পিতার দেখানো পথে সমতাভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠায় দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১১ সালে জয়িতা সম্মাননা প্রদান প্রথম শুরু হয়। এ সময় প্রতিমন্ত্রী নির্যাতনসহ নারীর প্রতি সকল প্রকার বৈষম্য বন্ধ করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টির আহ্বান জানান। এ বছর রাজশাহী বিভাগে অর্থনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জনকারী নারী হিসেবে পাবনার সুমনা সুলতানা সাথী, শিক্ষা ও চাকরি ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী নারী হিসেবে বগুড়ার মিফতাহুল জান্নাত, সফল জননী নারী হিসেবে রাজশাহীর আমিনা হক, নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলে নব উদ্যমী নারী হিসেবে পাবনার রোজিনা খাতুন ও সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ রাজশাহীর সেলিনা বেগম শ্রেষ্ঠ জয়িতার সম্মাননা গ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে বিভাগীয় কমিশনার ড. হুমায়ুন কবীরের সভাপতিত্বে এমপি আদিবা আনজুম মিতা, ভার্চুয়াল মাধ্যমে যুক্ত হয়ে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কাজী রওশন আক্তার, রাজশাহী রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি টি এম মুজাহিদুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল ও রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার মো. সাজিদ হোসেন বক্তৃতা করেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর