শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ৪ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:২৭

বিচারব্যবস্থায় ব্যাপক সংস্কার প্রয়োজন

-নিজস্ব প্রতিবেদক

বিচারব্যবস্থায় ব্যাপক সংস্কার প্রয়োজন
Google News

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান এমপি বলেছেন, ‘ইজ অব ডুয়িং বিজনেস সূচকে উন্নতি করতে বিচার ব্যবস্থায় ব্যাপক সংস্কার প্রয়োজন। দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণে সরকার বেশ কিছু প্রয়োজনীয় সংস্কারের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করেছে। আগামীতে তা অব্যাহত থাকবে। সরকার অনেক সময় বিভিন্ন সংস্কার কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা সত্ত্বেও ব্যাংক, ব্যবসায়ীসহ সংশ্লিষ্ট মহলের কাছে তা যথাসময়ে না পৌঁছানোর জন্য জরিপের সময় কম পয়েন্ট পেতে হয়। এতে সংস্কার করেও তেমন লাভ হয় না। এজন্য যে কোনো সংস্কারের সংবাদ দ্রুততম সময়ে ব্যবসায়ী মহলসহ সব স্তরে প্রচার প্রয়োজন। গতকাল ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) আয়োজিত ‘বাংলাদেশের প্রতিযোগিতার সক্ষমতা : ব্যবসা পরিচালন সূচকে অন্যতম অনুষঙ্গ’ শীর্ষক ওয়েবিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। গণমাধ্যমে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে ডিসিসিআই বলেছে, ওই ওয়েবিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো. গোলাম সারওয়ার। স্বাগত বক্তব্য দেন ডিসিসিআই সভাপতি রিজওয়ান রাহমান। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাত্তার অ্যান্ড কোং-এর প্রধান মো. সামির সাত্তার। এ ছাড়াও বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহীম, বিল্ড-এর চেয়ারপারসন আবুল কাসেম খান, বাংলাদেশ ব্যাংকের ফরেন এক্সচেঞ্জ ইনভেস্টমেন্ট বিভাগের মহাব্যবস্থাপক জগন্নাথ চন্দ্র ঘোষ, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা)-এর পরিচালক জীবন কৃষ্ণ সাহা রয়, জেট্রো বাংলাদেশ-এর প্রতিনিধি কাজিমুরি ইয়ামাডা, প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের চেয়ারম্যান এবং সিইও আহসান খান চৌধুরী এবং ওরিক্স বায়ো-টেক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক  ডেভিড বাও প্রমুখ।

আইন ও বিচার বিভাগের সচিব গোলাম সারওয়ার বলেন, ব্যবসা পরিচালনার সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান উন্নয়নে আরবিট্রেশন, ব্যবসায়িক চুক্তি বাস্তবায়ন এবং দেউলিয়াত্ব প্রভৃতি বিষয়ে প্রয়োজনীয় নীতি সংস্কার সহায়তা প্রদান করা হবে। বাণিজ্য বিরোধবিষয়ক মামলা পরিচালনায় ই-জুডিশিয়ারি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। বিদ্যমান দেউলিয়াত্ব আইন-১৯৯৭ সংশোধনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বাণিজ্য বিরোধ নিষ্পত্তি সহজতর করার জন্য সরকার ঢাকা ও চট্টগ্রামে ‘কমার্শিয়াল কোর্ট’ ও কমার্শিয়াল অ্যাপিলেড কোর্ট স্থাপনের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।  ডিসিসিআই সভাপতি রিজওয়ান রাহমান বলেন, বৈশি^ক প্রতিযোগিতার সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান উন্নয়নে বেসরকারি খাতের অংশগ্রহণে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন জাতীয় স্টিয়ারিং কমিটি গঠনের প্রস্তাব করছি।

 

এই বিভাগের আরও খবর