শনিবার, ৩ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা

বেড়েছে নদ-নদীর পানি

বিভিন্ন স্থানে ভাঙন, ডুবছে ঘরবাড়ি

প্রতিদিন ডেস্ক

বেড়েছে নদ-নদীর পানি

ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার উত্তর দৌলতপুর মুহুরী নদীর বাঁধ ভেঙে ১০টি গ্রাম প্লাবিত -বাংলাদেশ প্রতিদিন

ব্রহ্মপুত্র, যমুনা ও পদ্মা নদীসহ বিভিন্ন নদ-নদীর পানি বেড়ে চলেছে। এরই মধ্যে নিম্নাঞ্চলের অনেক স্থানে ব্যাপক ভাঙন শুরু হয়েছে। অনেক স্থানেই ঘর-বাড়ি ডুবে গেছে এবং মানুষ পানিবন্দী অবস্থায় রয়েছেন।

আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর- লালমনিরহাট : কয়েকদিনের ভারি বর্ষণ আর উজানের পাহাড়ি ঢলে তিস্তার পানি কিছুটা বেড়েছে। এতে ভাঙনের মুখে পড়েছে লালমনিরহাটের মহিষখোচার সলেডি স্প্যার বাঁধ-২ ও শত শত ঘর বাড়ি। এ ছাড়া তিস্তার উপকূলেও দেখা দিয়েছে তীব্র ভাঙন। পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান গতকাল জানান, ২৪ ঘণ্টায় তিস্তার ভাঙনে ২৭টি ঘরবাড়ি বিলীন হয়েছে। তিস্তার উপকূলের ২৪টি পয়েন্টে দেখা দিয়েছে ভাঙন। কুড়িগ্রাম : উজানের পানি ও ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে কুড়িগ্রামের তিস্তা, ধরলা ও ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, যেভাবে নদ-নদীর পানি বাড়ছে তাতে খুব অল্প সময়েই বন্যার আশঙ্কা করা হচ্ছে। জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে ব্রহ্মপুত্র ও ধরলার পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করতে পারে। ২৪ ঘণ্টায় তিস্তা নদীর পানি কাউনিয়া পয়েন্টে কিছুটা কমলেও ধরলা ও ব্রহ্মপুত্র নদের পানি সবকটি পয়েন্টে বেড়েই চলেছে।  সিরাজগঞ্জ : কয়েকদিনের টানা বৃষ্টি ও উজান থেকে আসা পাহাড়ি ঢলে সিরাজগঞ্জের যমুনা নদীতে ২৪ ঘণ্টায় ৪৬  সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। পানি বিপৎসীমার ১ দশমিক ৪১ মিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। জেলার চরাঞ্চল ও নদী-তীরবর্তী নিম্ন এলাকাগুলো প্লাবিত হতে শুরু করেছে। জেলার সদর, চৌহালী, শাহজাদপুর ও কাজিপুরের বেশ কিছু এলাকায় ভাঙনও দেখা দিয়েছে। ফেনী : প্রবল বর্ষণ ও ভারতের উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে ফুলগাজীতে মুহুরী নদীর ১টি স্থানে বাঁধ ভাঙার পর গত রাতে পরশুরামে কহুয়া নদীর ১টি স্থানসহ আরও দুটি স্থানে বাঁধ ভেঙে গেছে। এতে ফুলগাজী ও পরশুরামের কমপক্ষে ১০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। বন্যায় ভেসে গেছে শত শত মাছের ঘের। পানি উঠে পড়েছে মানুষের ঘর-বাড়ি ও রাস্তা-ঘাটে। শেরপুর : তিন দিনের টানা বর্ষণ ও ভারতের মেঘালয় থেকে আসা পাহাড়ি ঢলে শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতি শহর ও নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

সুনামগঞ্জ : সুনামগঞ্জে গত দুই দিনের তুলনায় বৃষ্টিপাত কিছুটা কম হওয়ায় নদীগুলোতে পানি কমেছে। কমেছে পাহাড়ি ঢলের চাপও। তবে এখনো সব পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। উজানে প্রবল বৃষ্টিপাত ও পাহাড়ি ঢল অব্যাহত থাকলে পানি বাড়বে বলে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহের ধোবাউড়া ও হালুয়াঘাট উপজেলার অন্তত ৩০ গ্রামের মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন। টানা বৃষ্টিতে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে নেতাই নদীর বাঁধ ভেঙে যাওয়ায় এ অবস্থা হয়েছে।

নালিতাবাড়ী (শেরপুর) : টানা বর্ষণে শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে ভোগাই ও চেল্লাখালী নদী দিয়ে ধেয়ে আসা পাহাড়ি ঢলে প্লাবিত হয়েছে বিভিন্ন অঞ্চল। ঢলের পানির তোড়ে ভেসে গেছে হাজারো পুকুরের মাছ। পানির নিচে রয়েছে শত শত হেক্টর আউস ধান ও আমনের বীজতলা।

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর