Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
প্রকাশ : রবিবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৫৯

ফারাক্কার পানিতে বাংলাদেশে বন্যার খবর ভুল : ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি

ফারাক্কার পানিতে বাংলাদেশে বন্যার খবর ভুল : ভারত

ভারতের ফারাক্কা বাঁধের সব গেট খুলে দেওয়ায় বাংলাদেশে বন্যার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে বলে সে দেশের পত্রপত্রিকায় যে খবর বেরিয়েছে তা ‘ভুল ও বিভ্রান্তিকর’ বলে জানাল ভারত সরকার। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বিকাশ স্বরূপ এ কথা জানিয়ে বলেছেন, পানিসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রণালয় থেকে পাওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী ফারাক্কা বাঁধের গেটগুলো দিয়ে গঙ্গার পানি স্বাভাবিকভাবেই ছাড়া হচ্ছে। ৩১ আগস্ট বাংলাদেশের সংবাদপত্রে প্রকাশিত সে দেশের পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদের একটি প্রতিবেদন তুলে ধরে বিকাশ স্বরূপ বলেন, ‘মি. আনিসুলই বলেছেন ভারত হঠাৎ ফারাক্কা বাঁধের গেট খোলেনি এবং বাংলাদেশে নতুন করে বন্যার আশঙ্কা নেই। বর্ষাকালে অতিরিক্ত পানি ছাড়ার জন্য ফারাক্কা বাঁধের সব গেট খোলাই থাকে, এটা নতুন কিছু নয়।’ শুক্রবার সাংবাদিকদের এ প্রসঙ্গে স্বরূপ বলেন, ‘ফারাক্কা গেট খুলে দেওয়ায় বাংলাদেশে বন্যার পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে বলে বিভিন্ন সংবাদপত্রে যে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে তা “ভুল ও বিভ্রান্তিকর”। বর্ষাকালে গঙ্গার অতিরিক্ত পানি স্বাভাবিকভাবে ছেড়ে দেওয়ার জন্য ফারাক্কার গেট খোলাই থাকে। এ প্রক্রিয়াটি রুটিনমাফিক এবং অবশ্যম্ভাবী।’ ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে স্থায়ী ব্যবস্থা অনুযায়ী বর্ষাকালে দুই দেশের কেন্দ্রীয় নদী কমিশনের তরফে ফারাক্কা ও সাহিবগঞ্জ এলাকায় বন্যার সতর্কতা থাকে। সেখানে নতুন করে ফারাক্কা বাঁধের গেট খোলা নিয়ে কোনো সতর্কতা জারি করা হয়নি। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সে দেশের সংবাদপত্রে প্রকাশিত আরেকটি প্রতিবেদন তুলে ধরে বলেন, ‘বাংলাদেশের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের তরফেই বলা হয়েছে, আগস্টে পানি বৃদ্ধির পরিমাণ অস্বাভাবিক নয়।’ পশ্চিমবঙ্গে ফারাক্কা বাঁধের প্রায় সব গেট খুলে দেওয়ায় বাংলাদেশে পদ্মাবিধৌত এলাকায় বন্যার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে বলে সম্প্রতি বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। সেখানে আরও বলা হয়, ‘আশঙ্কাজনক বাড়ছে পদ্মার পানি। রাজশাহীতে পদ্মার পানির উচ্চতা বাড়ায় নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে।’


আপনার মন্তব্য