শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৯ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ মার্চ, ২০২০ ২৩:৩০

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ১৭ মার্চ জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে যে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের কথা ছিল তা স্থগিত করা হয়েছে। এ অনুষ্ঠানটি পরবর্তীতে করা হবে বলে বলা হয়েছে। করোনাভাইরাসের কারণে জনসমাগম এড়াতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে ১৭ মার্চ ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনকের সমাধিস্থলে যথারীতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হবে।

গতকাল রাতে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় কমিটি ও জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির সভায় এসব সিদ্ধান্ত হয়। সভায় প্রধানমন্ত্রীর ছোট বোন ও বঙ্গবন্ধুর অপর কন্যা শেখ রেহানাও উপস্থিত ছিলেন। সভা শেষে পৌনে রাত ১১টার দিকে এসব সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন উদযাপন কমিটির সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী। তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলনে কামাল নাসের চৌধুরী বলেন, আপনারা জানেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বছরব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। কিন্তু করোনাভাইরাসের ফলে বিশ্ব পরিস্থিতির কারণে সেই অনুষ্ঠানসূচি কিছুটা পুনর্বিন্যাস করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অনুষ্ঠান উদযাপন ও বাস্তবায়ন জাতীয় কমিটি। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী সবার আগে দেশের জনগণের কথা চিন্তা করেছেন। তিনি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু সারাজীবন জনগণের জন্য রাজনীতি করেছেন। জনগণের কল্যাণে রাজনীতি করেছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর কারণে যেন জনগণ কষ্ট না পায়। সেই চিন্তা থেকেই বড় জনসমাগম পরিহার করে জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান পালনের সিদ্ধান্ত দিয়েছেন। কামাল নাসের বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর কর্মসূচিতে কিছুটা পুনর্বিন্যাস করা হচ্ছে। আজ সোমবার বিকালে অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির সভা শেষে পুনর্বিন্যাসকৃত কর্মসূচি জানিয়ে দেওয়া হবে। আরেক প্রশ্নের জবাবে কামাল নাসের বলেন, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিদেশি অতিথিদের আসার কথা ছিল। সেটা আপনারা জানেন। সেভাবেই পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছিল। সেখানে আমাদের বন্ধুরাষ্ট্র থেকে শুরু করে অনেক রাষ্ট্রের অতিথিই আসার কথা ছিল। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতির কারণে তারা আসবেন না। তিনি জানান, প্যারেড গ্রাউন্ডে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান না হলেও ১৭ মার্চ সকালে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানোর মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু হবে। টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিস্থলেও শ্রদ্ধা জানানো হবে। এর বাইরে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যেসব আলোচনা অনুষ্ঠানসহ অন্যান্য অনুষ্ঠান করার কথা রয়েছে সেগুলো জনসমাগম এড়িয়ে করার কথা বলা হয়েছে। আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী যেসব অনুষ্ঠানে থাকবেন সেগুলো সীমিত আকারে করা হবে। তিনি জানান, স্মারক ডাক টিকিট প্রকাশ, স্মারক মুদ্রা প্রকাশ, বিভিন্ন প্রকাশনা সেগুলো যথারীতি হবে।  কামাল নাসের বলেন, আরেকটি বিষয় হচ্ছে বঙ্গবন্ধু বলেছেন যে তাঁর জীবনের একমাত্র লক্ষ্য হচ্ছে দেশের মানুষ যেন খাদ্য পায়, অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান পায়। বঙ্গবন্ধুর সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রী সিদ্ধান্ত দিয়েছেন মুজিববর্ষে দেশের প্রতিটি গৃহহীন ও ভূমিহীন মানুষকে একটি করে ঠিকানা করে দেওয়া হবে।


আপনার মন্তব্য