শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৫ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ জুন, ২০১৯ ২৩:৪৮

ওষুধ ও চিকিৎসাসেবা নিয়ে বিপাকে দেড় লাখ প্রবাসী

শিমুল মাহমুদ, বৈরুত (লেবানন) থেকে

ওষুধ ও চিকিৎসাসেবা নিয়ে বিপাকে দেড় লাখ প্রবাসী

বিশ্বের ১৫১টি দেশে বাংলাদেশ ওষুধ রপ্তানি করলেও লেবাননে কর্মরত দেড় লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি ওষুধ ও পর্যাপ্ত চিকিৎসাসেবা না পেয়ে ধুঁকছে। অসুস্থতায় তারা উচ্চ মূল্যের ওষুধ কিনে খেতে পারেন না। ভাষাগত সমস্যার কারণে ডাক্তারের কাছে গিয়ে চিকিৎসাও নিতে পারেন না। স্বাস্থ্যসেবা অত্যন্ত ব্যয়বহুল হওয়ায় কার্যকর চিকিৎসার অভাবে অসংখ্য মানুষের জীবন বিপন্ন। এ প্রেক্ষাপটে গৃহশ্রমিক প্রাধান্যের এই দেশে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মানবিক সহায়তায় কাজ করছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও বাংলাদেশ দূতাবাস। প্রবাসী বাংলাদেশিদের সহায়তায় মাঝে মাঝেই ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার বৈরুতের বাংলাদেশ দূতাবাসে অনুষ্ঠিত হলো বিনামূল্যে চিকিৎসা ক্যাম্প। এতে দেশটির বিভিন্ন অঞ্চল থেকে দুই শতাধিক প্রবাসী বাংলাদেশি তাদের বিভিন্ন সমস্যায় ফ্রি পরামর্শ এবং ওষুধ সংগ্রহ করেন। লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবদুল মোতালেব সরকার মেডিকেল ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন।  

ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পের অনুষ্ঠানে বৈরুতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবদুল মোতালেব সরকার বলেন, প্রবাসীদের প্রতি মাসে নিয়মিত ফ্রি চিকিৎসাসেবা দেওয়ার জন্য আমাদের ইচ্ছা রয়েছে। কিন্তু প্রয়োজনীয় ওষুধের অভাবে সেটা নিয়মিত করা যাচ্ছে না। কারণ, এখানে একটি মেডিকেল ক্যাম্পে অনেক ওষুধ লাগে। তিনি বিনামূল্যের এই চিকিৎসাসেবা প্রতি মাসে নিয়মিত করার জন্য বাংলাদেশ নৌবাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, যদি এটা প্রতি মাসে নিয়মিত করা যায় তাহলে আমার চেয়ে বেশি খুশি আর কেউ হবে না। রাষ্ট্রদূত বলেন, ?সাধারণ প্রবাসীরা অসুস্থ হলে ভাষা জটিলতা এবং চিকিৎসাসেবা ব্যয়বহুল হওয়ায় ডাক্তারের কাছে যেতে চান না। ফলে সামান্য রোগে আক্রান্ত হলেও চিকিৎসার অভাবে পরে তা জটিল আকার ধারণ করে। আর এ কারণে অনেক প্রবাসীর প্রাণ অকালেই ঝরে যাচ্ছে। তিনি বলেন, আমি দূতাবাসে যোগদানের পরেই ২০১৬ সাল থেকে প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা চালু করেছি। এ পর্যন্ত প্রায় তিন হাজার বাংলাদেশি দূতাবাসের মাধ্যমে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা নিয়েছেন। মেডেল প্যারেড উপলক্ষে লেবাননে আসা প্রতিনিধি দলের প্রধান এবং বাংলাদেশ নৌবাহিনীর খুলনা নেভাল এরিয়ার কমান্ডার কমোডর এম মোজাম্মেল হক বলেন, প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য বিনামূল্যে এই চিকিৎসা সেবা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এখানে নিয়মিত যা ওষুধ লাগে তা দিতে আমরা প্রস্তুত। এই মেডিকেল ক্যাম্পটি যাতে প্রতি মাসে করা যায় আমরা সেই চেষ্টা করব। বাংলাদেশেও আমরা এরকম কার্যক্রম পরিচালনা করি। লেবাননে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ বিজয়ের (ব্যানকন-৯) কন্টিনজেন্ট কমান্ডার এবং বিএনএস বিজয়ের কমান্ডিং অফিসার এম নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা আমাদের দায়িত্ব পালন শেষে আগামী মাসে দেশে ফিরে যাচ্ছি। এরপর যারা দায়িত্ব পালন করবেন তারা এই বিনামূল্যের চিকিৎসাসেবা অব্যাহত রাখবে। বৈরুত দূতাবাসের উদ্যোগে এবং ইউনিফিলে নিয়োজিত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর মেডিকেল টিমের সহায়তায় লেবানন প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিনামূল্যে সাধারণ স্বাস্থ্যসেবা ও পরামর্শ প্রদানের মাধ্যমে এই চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে। সীমিত সামর্থ্যরে মধেই বৈরুতের বাংলাদেশ দূতাবাস এই চিকিৎসাসেবার পাশাপাশি গুরুতর অসুস্থ প্রবাসীদের হাসপাতালে পাঠিয়ে চিকিৎসা সহায়তা দিতে সর্বাত্মক চেষ্টা করে। গতকাল নৌবাহিনীর দুজন চিকিৎসক, প্যারামেডিসসহ মোট ১০ জন ইউনিফিল সদস্যের সহায়তায় দুই শতাধিক বাংলাদেশি প্রবাসীকে বেলা ৩টা থেকে বিনামূল্যে এই চিকিৎসাসেবা প্রদান করা হয়। বাংলাদেশ নৌবাহিনীর মেডিকেল টিম অসুস্থ প্রবাসীদের পরামর্শ প্রদান শেষে বিনামূল্যে বিভিন্ন ধরনের ওষুধ সরবরাহ করে। এ ছাড়া যেসব প্রবাসী বিভিন্ন জটিল রোগে ভুগছেন তাদের রাষ্ট্রদূত মোতালেব সরকার দূতাবাসের মাধ্যমে চিকিৎসাসেবা প্রদানের আশ্বাস দেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর