শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ জানুয়ারি, ২০২১ ২৩:৩৩

চেয়ারম্যানদের মতবিনিময়

উপজেলা পরিষদ কার্যকরে প্রধান বাধা আমলাতন্ত্র

নিজস্ব প্রতিবেদক

উপজেলা পরিষদ কার্যকর করতে পাঁচ দফা দাবির স্বপক্ষে সারা দেশে জেলা পর্যায়ে জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক ও বিশিষ্টজনদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস-চেয়ারম্যানরা। পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে তারা গতকাল সারা দেশে জেলা পর্যায়ে এই মতবিনিময় কর্মসূচি পালন করেন। ঢাকা জেলার উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস-চেয়ারম্যানরা গতকাল সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে মতবিনিময়সভা করেন। এতে অংশ নেন বাংলাদেশ উপজেলা পরিষদ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. সাইফুল ইসলাম খান বীরু। আর সংগঠনের সভাপতি হারুন-অর রশীদ হাওলাদার পটুয়াখালী প্রেস ক্লাবে মতবিনিময় সভা করেন। এসব বৈঠকে উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস-চেয়ারম্যানরা বলেন, সরকারপ্রধান ও আওয়ামী  লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা উপজেলা পরিষদ কার্যকর করতে আন্তরিক। কিন্তু আমলাদের কারণে পরিষদ কার্যকর করতে পারছেন না। প্রায় এক যুগে বিভিন্ন সময় জনপ্রশাসন, স্থানীয় সরকার বিভাগসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয় থেকে নানা প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র জারি করে পরিষদকে শুধু অকার্যকরই করা হয়নি, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী করা হয়েছে। সবকিছু ইউএনওরাই নিযন্ত্রণ করছেন। নিজেদের মতো করে পরিষদ চালানোর চেষ্টা করেন। মতবিনিময় সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস-চেয়ারম্যানরা অভিযোগ করেন, উপজেলা পরিষদ কার্যকর করতে প্রধান অন্তরায় হচ্ছে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র। তারা বলেন, ১৯৯৮ সালের উপজেলা পরিষদ আইন  যা ২০১১ সালে সংশোধন করা হয়েছে। সেই আইন এবং সংবিধানের আলোকে পরিচালনা করা হলে উপজেলা পরিষদ কার্যকরভাবে কাজ করতে পারবে। পটুয়াখালী প্রতিনিধি জানান, পটুয়াখালী প্রেস ক্লাবের ড. আতাহার উদ্দিন মিলনায়তনে পটুয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা পরিষদ অ্যাসোসিয়েশনের জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম সরোয়ারের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ উপজেলা পরিষদ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি দুমকি উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন-অর-রশিদ হাওলাদার। সভায় চেয়ারম্যান ও ভাইস-চেয়ারম্যানরা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক ও বিশিষ্টজনদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

এ সময় হারুন-অর-রশীদ হাওলাদার বলেন, উপজেলা পরিষদ কার্যকর করতে সরকার ২০১১ সালে আইন সংশোধন করে। তৃতীয় তফসিলে ১৭ বিভাগের কর্মকর্তা, কর্মচারী ও তাদের কার্যাবলী উপজেলা পরিষদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। কিন্তু গুটিকয়েক কর্মকর্তার নেতিবাচক মনোভাবের কারণে উপজেলা পরিষদ কার্যকর হয়নি। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের জারি করা নির্দেশনাবলি উপেক্ষা করে অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের সাংঘর্ষিক ও অসামঞ্জস্য পরিপত্র এর প্রধান অন্তরায়।

এছাড়া রাজশাহী, বরিশাল, বগুড়া, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, দিনাজপুর, নাটোর, ঠাকুরগাঁওসহ সারা দেশে জেলা পর্যায়ে বাংলাদেশ উপজেলা পরিষদ অ্যাসোসিয়েশন এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর