শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:৩৯

প্রেসক্রিপশন

প্রায় ৯০ শতাংশ মানুষ জীবনের কোনো না কোনো সময় কোমর ব্যথায় ভুগে থাকেন। কোমর ব্যথার ছোট-বড় অনেক কারণেই থাকে। সাধারণ প্যারাসিটামল থেকে শুরু করে অনেক ধরনের ব্যথার ওষুধ খেয়ে থাকেন। অনেকে ব্যথা কি ইগনোর করে থাকেন, আবার অনেকের বড় ধরনের সমস্যা হয়। আসুন জেনে নেই কী কারণে হচ্ছে এগুলো। অনেক কারণের মধ্যে একটি হচ্ছে ডিস্ক প্রলাপ্স বা স্লিপ ডিস্ক। আমাদের মেরুদন্ডের দুই কশেরুকার মাঝখানে নরম জেলির ন্যায় পদার্থ থাকে, এটাকে ডিস্ক বলে। ডিস্কের নরম অংশ বের হয়ে পা নিয়ন্ত্রণ করার স্নায়ুগুলোকে প্রেসার দেয়। ফলে কোমর ও পায়ে ব্যথা হয়। কোমরের যে ব্যথা পায়ে যায় এটাকে সাইটিকা বলে।

সাধারণত কোমরে কোনো আঘাত বা হঠাৎ কোনো ভারী বস্তু উঠাতে গেলে এ সমস্যা হতে পারে। তাছাড়া জন্মগত/জিনগত কিছু সমস্যার জন্য হতে পারে।

লক্ষণ কি: ডিস্ক প্রলাপ্সের কারণে কোমর ব্যথা হলে সাধারণত দ্রুত অথবা ধীরে ধীরে আরম্ভ হতে পারে, কোনো কোনো সময় ব্যথা আসে কিছুদিন ভালো থাকে আবার কিছুদিন খারাপ থাকে। কোমর ব্যথা সাধারণত বাটক, পায়ের পেছনের দিকে ছড়িয়ে যেতে পারে। ব্যথা সাধারণত হাঁচি-কাশি বা নিঃশ্বাস বন্ধ করলে বেড়ে যেতে পারে।

চিকিৎসা কী: ৯০ ভাগ সাইটিকা ব্যথার রোগী এমনিতেই ভালো হয়ে যায় ব্যথার ওষুধ খেলে। কেউকে ফিজিওথেরাপি, রেস্ট বা কোমরের মাসল শক্তিশালী করার ব্যায়াম করে ভালো থাকতে পারে। অনেক সময় কোমরে স্টেরয়েড ইনজেকশন করা যায়। তবে উপরের চিকিৎসায় ভালো না হলে অনেক সময় অপারেশন করার দরকার হয়।  তাই অবহেলা না করে যথাসময়ে চিকিৎসা নেওয়া উত্তম।

ডা. মো. গওছুল আযম

নিউরো সার্জারি বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল ইউনিভার্সিটি, ঢাকা।


আপনার মন্তব্য