শিরোনাম
প্রকাশ : ২৮ নভেম্বর, ২০২০ ০৯:১১
প্রিন্ট করুন printer

ইরানে গুপ্তহত্যার শিকার কে এই বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিযাদে?

অনলাইন ডেস্ক

ইরানে গুপ্তহত্যার শিকার কে এই বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিযাদে?
মোহসেন ফাখরিযাদে

গুপ্তহত্যার শিকার হয়েছেন ইরানের বিশিষ্ট পদার্থবিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিযাদে। শুক্রবার দেশটির রাজধানী তেহরানের কাছে দামাভান্দ কাউন্টির আবসার্ড এলাকায় আততায়ীর গুলিতে তিনি নিহত হন।

কে এই বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিযাদে?

মোহসেন ফাখরিযাদে ইরানের সবচেয়ে প্রবীণ পরমাণু বিজ্ঞানী। তিনি ছিলেন ইরানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের গবেষণা ও উদ্ভাবনী সংস্থার প্রধান।

তিনি ইরানের রেভরল্যুশনারি গার্ডের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাও ছিলেন, যাকে ‘ইরানে বোমার জনক’ বলা হয়। তার মর্যাদা ছিল মন্ত্রণালয়ের উপ-প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও রেভরল্যুশনারি গার্ডের ব্রিগেডিয়ার জেনারেলের সমান।

মোহসেন ফাখরিযাদে ১৯৫৮ সালে ইরানের শিয়া সম্প্রদায়ের পবিত্র নগরী হিসেবে পরিচিত ‘কওম’ নামক শহরে জন্ম গ্রহণ করেন।

তিনি পরমাণু প্রকৌশল নিয়ে ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেছেন। ইরানের ‘ইউনিভার্সিটি অব ইমাম হোসেইন’র পরমাণু বিভাগের অধ্যাপক ছিলেন মোহসেন ফাখরিযাদে।

দীর্ঘ দিন পর্যন্ত ইরানি পরমাণুবিজ্ঞানী হিসেবে তাকে কখনওই সে দেশের গণমাধ্যম প্রকাশ্যে আনতো না। বরং তাকে একজন সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক হিসেবে পরিচয় দিত দেশটির গণমাধ্যম।

কিন্তু যখন ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ইরানের পরমাণু বিষয়ক চুক্তি হয় তারপর থেকেই মোহসেন ফাখরিযাদের নাম প্রকাশ্যে আসে।

ইসরায়েল এবং পশ্চিমা গোয়েন্দা সংস্থাগুলো দীর্ঘদিন ধরে বলে আসছে তিনি ইরানের খুবই ক্ষমতাশালী ব্যক্তি এবং ইরানের পরমাণু কর্মসূচির প্রধান স্তম্ভ।

২০১৮ সালে ইসরায়েল বলেছিল তাদের হাতে যেসব গোপন নথিপত্র এসেছে সেগুলো অনুয়ায়ী ইরানের পরমাণু কর্মসূচির তিনি প্রধান রূপকার মোহসেন ফাখরিযাদে। তার নেতৃত্বেই ইরানের পরমাণু কর্মসূচি গড়ে উঠেছে।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বিনিয়ামিন নেতানিয়াহু সেসময় বলেছিলেন “ওই নামটা (মোহসেন ফাখরিযাদে) মনে রাখবেন”- তিনিই ইরানের পরমাণু কর্মসূচির প্রধান বিজ্ঞানী।

২০১৫ সালে নিউইয়র্ক টাইমস তার তুলনা করেছিল জে রবার্ট ওপেনহাইমারের সাথে। ওপেনহাইমার দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের সময় ম্যানহাটান প্রকল্পের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন যে প্রকল্পের অধীনে প্রথম আণবিক বোমা তৈরি করা হয়। সূত্র: ওয়াশিংটন পোস্ট, নিউইয়র্ক টাইমস, আল-জাজিরা, বিবিসি

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর