শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০৪

৭ দফা দাবিতে মানববন্ধন

মুক্তিযোদ্ধা ভাতা বন্ধ করায় মন্ত্রণালয়ের সমালোচনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

মুক্তিযোদ্ধা ভাতা বন্ধ করায় মন্ত্রণালয়ের সমালোচনা

আদালতের নির্দেশনা উপেক্ষা করে মুক্তিযোদ্ধা ভাতা বন্ধ করে দেওয়ায় মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ের কঠোর সমালোচনা করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা লীগের নেতারা।

এ সময় তারা বলেন, আপিল শেষ না হওয়া পর্যন্ত মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বন্ধ করা যাবে না মর্মে নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। কিন্তু মন্ত্রণালয়ের ভুল সিদ্ধান্তে মুক্তিযোদ্ধারা হয়রানির শিকার হচ্ছেন। এ বিষয়ে নেতারা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। একই সঙ্গে আগামী ২৬ মার্চের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধাদের বন্ধ ভাতা চালুসহ ৭ দফা দাবি মেনে নেওয়ার আহ্বান জানান। রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গতকাল বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা লীগের এক মানববন্ধনে এসব দাবি জানানো হয়।

 সমাবেশে বিভিন্ন জেলা থেকে আগত যাচাই-বাছাই পর্বে থাকা মুক্তিযোদ্ধারা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় সংগঠনের সভাপতি আলহাজ মো. মজিবুর রহমান বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ১১ বছর ধরে ক্ষমতায় আছে, কিন্তু মুক্তিযোদ্ধাদের সমস্যার সমাধান ও ভাগ্যের পরিবর্তন এখনো হয়নি। এতদিন ক্ষমতায় থাকার পরও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী সঠিক মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাছাই করতে পারেননি। যাচাই-বাছাইয়ে যারা না মঞ্জুরকৃত হয়েছিলেন, আদালত তাদের আপিল করার সুযোগ দিয়েছিল। একই সঙ্গে আপিল শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের ভাতা বন্ধ করা যাবে না বলে মন্ত্রণালয়ের প্রতি নির্দেশ দিয়েছিল। কিন্তু আদালতের নির্দেশনা উপেক্ষা করে মন্ত্রণালয় ভাতা বন্ধ করে দিয়েছে।


আপনার মন্তব্য