শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২ জুন, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২ জুন, ২০২০ ০০:২২

ভিন্নভাবে উদযাপিত হবে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

ভিডিও কনফারেন্সে মতবিনিময় করবেন শেখ হাসিনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

এবার ব্যতিক্রমভাবে উদযাপিত হবে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। এ উপলক্ষে প্রতি বছর জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজন থাকলেও স্বাধীনতার নেতৃত্বদানকারী আওয়ামী লীগের ৭১তম জন্মদিন উদযাপিত হবে ভিন্ন পরিবেশে। বড় কোনো কর্মসূচি নেই। গণভবন থেকে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন। একই সঙ্গে ঐতিহাসিক ৭ জুন ৬ দফা দিবস সীমিত পরিসরে কর্মসূচি পালন করা হবে। গতকাল সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর কার্যালয়ে অনির্ধারিত এক বৈঠকে এসব নিয়ে আলোচনা হয়। এ সময় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে বৈঠকে অংশ নেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক, এস এম কামাল হোসেন, মির্জা আজম এমপি, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যাবিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ সদস্য সাহাবুদ্দীন ফরাজী প্রমুখ। এ সময় তারা মুঠোফোনে দলের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে আলাপ করেন। এ সময় করোনার কারণে সীমিত পরিসরে কর্মসূচি পালন করা এবং ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর দলের কার্যনির্বাহী সংসদের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন বলে জানান। দলের উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বৈঠক সূত্র জানায়, করোনার কারণে এবার আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি সীমিত পরিসরে করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। কার্যনির্বাহী সংসদের সব সদস্য না গিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে প্রতিনিধির মাধ্যমে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে শ্রদ্ধা নিবেদন, টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করার কথা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে দলের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, অনির্ধারিত আলোচনায় দলের ৭১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও ঐতিহাসিক ৭ জুন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমরা মুঠোফোনে দলের সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে কথা বলেছি। বড় কোনো কর্মসূচি না থাকলেও দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হবেন। আমরা কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে থাকব। এ ছাড়াও প্রতিনিধির মাধ্যমে ধানমন্ডি ৩২ নম্বর ও টুঙ্গিপাড়ায় শ্রদ্ধা নিবেদনের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এ সময় বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে করোনাভাইরাসে সৃষ্ট মারাত্মক সংকট উত্তরণ এবং করোনা-পরবর্তী বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি সমুন্নত রাখতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের করণীয় ও কর্মকৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা হয়।


আপনার মন্তব্য