Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২৩:৫৪

আমরা চাই তিস্তা চুক্তি দ্রুত বাস্তবায়ন হোক : হাছান মাহমুদ

দীপক দেবনাথ, কলকাতা

আমরা চাই তিস্তা চুক্তি দ্রুত বাস্তবায়ন হোক : হাছান মাহমুদ

তিস্তা পানি বন্টন চুক্তি দ্রুত বাস্তবায়ন চায় বাংলাদেশ।  শনিবার সন্ধ্যায় কলকাতার ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশন (আইসিসিআর)-এ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে "বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ' শীর্ষক একটি চিত্র প্রদর্শনীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ এই আশা ব্যক্ত করেন। 

এসময় তিনি বলেন "পানির অধিকার সবার আছে। আমি মনে করি সব দেশের মানুষের কল্যাণ যাতে হয়, সেই ধরনের একটি ব্যবস্থাপনা আমাদের প্রয়োজন।' তিস্তা নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির অবস্থান প্রসঙ্গে তিনি বলেন 'আমি যেটা বলব ভারত সরকারের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে।' 

জাতীয় নাগরিক পঞ্জি (এনআরসি) নিয়ে তথ্যমন্ত্রীর মন্তব্য "এটা ভারতের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। এ বিষয়ে আমি কোন মন্তব্য করব না। এ ব্যাপারে আমার মন্তব্য অপ্রাসঙ্গিক। এখানকার রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব নানা বক্তব্য রাখবেন কিন্তু তা নিয়ে আমি কোনো মন্তব্য করতে চাই না।" 

তার  অভিমত, "প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারত সরকারের নেতৃত্বে দুই দেশের মৈত্রীর বন্ধন নতুন উচ্চতায় উন্নীত হয়েছে। অর্থনৈতিক, সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে এই সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে।"

এর আগে এদিন বিকালে কলকাতা প্রেস ক্লাবে "বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ" কলকাতার সাংবাদিকরা ও প্রেস ক্লাব বিষয়ক একটি পুস্তিকার উপর আলোচনা সভায় যোগ দেন বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী। আলোচনায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কলকাতা প্রেস ক্লাবের সভাপতি স্নেহাশিস সুর, সম্পাদক কিংশুক প্রামাণিক, কলকাতার বাংলাদেশ ডেপুটি হাই কমিশনার তৌফিক হাসান, প্রেস সচিব মোফাকখারুল ইকবাল। 

আলোচনা সভা শুরুর আগে কলকাতা প্রেস ক্লাবের তরফে তথ্যমন্ত্রীকে সম্মাননা জানানো হয়। প্রেসক্লাবের এই উদ্যোগ ব্যতিক্রমী আয়োজন বলে অভিহিত করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, "আজ যে সংকলনটি প্রকাশ করা হয়েছে, সেটি মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে অনবদ্য দলিল হয়ে থাকবে।" 

মুক্তিযুদ্ধে ভারত সরকারের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তিনি বলেন, "সে সময় এক কোটি মানুষকে ভারতে আশ্রয় দিয়েছিল। সর্বস্ব দিয়ে ভারতের মানুষ তাদের পাশে দাঁড়িয়েছিল। ১৬৬১ জন ভারতীয় সৈন্য তাদের জীবন দান করেন।" 

উল্লেখ্য কলকাতা প্রেস ক্লাবের সভাপতি স্নেহাশীষ সুর'র সংকলন ও সম্পাদনায় 'বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ' কলকাতার সাংবাদিকরা এবং প্রেসক্লাব কলকাতা- এই বইটির আনুষ্ঠানিক মোড়ক উন্মোচন করা হয়। গত জুলাইয়ে প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন মমতা ব্যানার্জি।

 

বিডি প্রতিদিন/ তাফসীর আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য