শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৩ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ জুলাই, ২০২১ ২৩:৩০

টিকা নিতে লম্বা লাইন স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই

বাগেরহাট প্রতিনিধি

টিকা নিতে লম্বা লাইন স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই
Google News

বাগেরহাট সদর হাসপাতালের করোনা টিকা কেন্দ্রে গতকাল দুটির জায়গায় পাঁচটি বুথ চালু করেও মানুষের ভিড় সামলাতে হিমশিম খাচ্ছেন স্বাস্থ্য বিভাগ ও যুব রেড ক্রিসেন্ট সদস্যরা। প্রায় ২ হাজার মানুষ গতকাল সকাল ৮টা থেকে বিকাল পর্যন্ত দাঁড়িয়ে করোনার সিনোফার্মের টিকা নিয়েছেন। তবে এই দীর্ঘ লাইনে মানা হয়নি স্বাস্থ্যবিধি। এ অবস্থার মধ্যে আজ (মঙ্গলবার) থেকে জেলার সব উপজেলায় দ্বিতীয় পর্যায়ে চালু হচ্ছে গণটিকা কার্যক্রম।  সদর হাসপাতালের করোনা টিকা কেন্দ্রে গিয়ে গতকাল দেখা যায়, টিকা নিতে আসা লোকজনের দীর্ঘ লাইন। রোদের মধ্যে দাঁড়িয়ে রয়েছেন প্রায় ২ হাজার নারী-পুরুষ। এদের অনেকে রেজিস্ট্রেশন করে মোবাইল মেসেজের নির্দিষ্ট তারিখের আগেই টিকা নিতে কেন্দ্রে হাজির হয়েছেন। টিকা নিতে আসা রহিমা বেগম, আবুল হাসনাত স্বপন, দিলীপ ঘোষ জানান, আগে যারা দুই ডোজ করোনা টিকা নিয়েছেন তারা আক্রান্ত হলেও দ্রুত সেরে উঠছেন। ওই সময়ে অনেকে প্রথম ডোজ নিয়ে টিকা সংকটের কারণে এখনো দ্বিতীয় ডোজ নিতে পারেননি। বাগেরহাটে দেড় মাস ধরে করোনা তান্ডব চালাচ্ছে। এ অবস্থায় সংক্রমণ থেকে বাঁচতে আগেভাগে তারা টিকা নিতে এসেছেন। সরকারি হাসপাতালে টিকা কেন্দ্রে লম্বা লাইনে স্বাস্থ্যবিধি না থাকায় তারা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, বাগেরহাটে করোনার গণটিকা দিতে দ্বিতীয় দফায় ২৩ হাজার টিকা পাঠানো হয়েছে। সিভিল সার্জন ডা. কে এম হুমায়ুন কবির বলেন, গত ১৯ জুন থেকে সদরে দ্বিতীয় পর্যায়ে সিনোফার্মের গণটিকা দেওয়া কার্যক্রম শুরু হয়েছে। কাল (মঙ্গলবার) উপজেলায় দ্বিতীয় পর্যায়ে চালু হচ্ছে গণটিকা কার্যক্রম। বাগেরহাট সদর হাসপাতালের করোনা টিকা কেন্দ্রে প্রতিদিনই টিকা গ্রহণে ইচ্ছুকদের ভিড় বাড়ছে। লোকজনের চাপ সামলাতে সোমবার থেকে এই কেন্দ্রে পাঁচটি বুথ চালু করা হয়েছে। তারপরও হিমশিম খেতে হয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ ও যুব রেড ক্রিসেন্ট সদস্যদের। টিকার জন্য রেজিস্ট্রেশনের পর মোবাইল ফোনে মেসেজ এলে টিকা কেন্দ্রে আসতে বলা হচ্ছে।

এই বিভাগের আরও খবর