Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ অক্টোবর, ২০১৭ ২৩:২৯

এশিয়া কাপ হকির ট্রফি উন্মোচন

ক্রীড়া প্রতিবেদক

এশিয়া কাপ হকির ট্রফি উন্মোচন
৩২ বছর পর ঢাকায় আগামীকাল পর্দা উঠছে এশিয়া কাপ হকির। গতকাল টুর্নামেন্টের ট্রফি উন্মোচন করলেন এশিয়ান হকি ফেডারেশনের প্রধান নির্বাহী তৈয়ব ইকরাম। এ সময় সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আবদুস সাদেক, এএইচএফের সদস্য আবদুর রশিদ সিকদার ও হিরো মোটরসের অজয় সিনহা —বাংলাদেশ প্রতিদিন

আগামীকালই শুরু হচ্ছে বহু প্রতীক্ষিত এশিয়া কাপ হকি। গতকাল এই টুর্নামেন্টের ট্রফি উন্মোচন করা হয় প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ে। এই ট্রফি উন্মোচন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী আট দলের অধিনায়ক ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন এশিয়ান হকি ফেডারেশনের সিইও তৈয়ব ইকরাম, বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আবদুস সাদেক, এশিয়া হকি ফেডারেশনের নির্বাহী সদস্য আবদুর রশিদ শিকদার, হিরো মটর্সের অজয় সিনহা এবং এশিয়া হকি ফেডারেশনের স্পোর্টস ডিরেক্টর এলিজাবেথ জোন্সসহ আরও অনেকে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দিতে এসে আবদুস সাদেক বলেন, ‘৪৮ ঘণ্টা পরই (একদিন পর) শুরু হতে যাচ্ছে বহু কাঙ্ক্ষিত এশিয়া কাপের দশম আসর। দলগুলোও চলে এসেছে। ঘরের মাঠে দুটি এশিয়া কাপের সাক্ষী হতে যাচ্ছি আমরা। আশা করছি সবার সহযোগিতায় সফলভাবেই এই আসর আমরা শেষ করতে পারব। এর প্রমাণ আমরা রেখেছি অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপে ও ওয়ার্ল্ড হকি লিগ রাউন্ড টু আয়োজন করে।’ এশিয়া হকি ফেডারেশনের সিইও তৈয়ব ইকরাম তো প্রশংসায় ভাসালেন বাংলাদেশকে। কদিন আগেও হকির যে অবকাঠামো ছিল তার চেয়ে অনেক উন্নতি দেখতে পেয়েছেন এশিয়া হকির এই কর্তা। আয়োজন নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে তৈয়ব ইকরাম বলেন, ‘বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের কর্মকর্তাদের চাহিদার ফসল এই এশিয়া কাপ। তারা তাদের কথা রেখেছে। প্রধান শর্ত ছিল ফ্লাড লাইট। সেটি তারা পূরণ করতে পেরেছে।’ তিনি ক্রীড়া ক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

ট্রফি উন্মোচন অনুষ্ঠানে এছাড়াও সাংবাদিকদের নানান প্রশ্নের জবাব দেন টুর্নামেন্টে অংশগ্রহরকারী আট দলের অধিনায়করা। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দক্ষিণ কোরিয়ার অধিনায়ক সিয়াং-ইল লি বলেন, ‘আমরা এখানে চ্যাম্পিয়ন হতেই এসেছি। এখান থেকে শিরোপা নিয়েই বিশ্বকাপ খেলতে চাই।’ এশিয়া কাপে চারবারের চ্যাম্পিয়ন দক্ষিণ কোরিয়া এবারেও ফেবারিট। অবশ্য ভারতীয় অধিনায়ক মনপ্রিত সিং বললেন, এখানে চ্যাম্পিয়ন হতে চায় সবাই। ভারত তাদের সেরাটা উপহার দিতে এসেছে এখানে। পাকিস্তানের অধিনায়ক মুহাম্মদ ইরফান জানালেন, তার দলও প্রস্তুত। ম্যাচ বাই ম্যাচ খেলতে চান তারা। ট্রফি উন্মোচন অনুষ্ঠানে এছাড়াও চীন, জাপান, ওমান ও মালয়েশিয়ার অধিনায়কও ছিল।


আপনার মন্তব্য