Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১০ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ এপ্রিল, ২০১৯ ২২:৫৯

ভূমিকম্পজনিত বিপদ

রাজধানীর ভবনগুলোকে ঝুঁকিমুক্ত করুন

ভূমিকম্পজনিত বিপদ

বড় ধরনের ভূমিকম্প হলে বিপন্ন হয়ে পড়বে রাজধানী ঢাকা। ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞের পাশাপাশি ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের আশঙ্কাও রয়েছে। মানুষের জীবন রক্ষায় এখন থেকেই ঢাকাকে আরও নিরাপদ করে তোলার তাগিদ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। এজন্য অবাস্তব ধারণায় না ভুগে বাস্তবমুখী পদক্ষেপ গ্রহণের ওপর জোর দিয়েছেন তারা। রাজধানীতে বাংলাদেশ স্থপতি ইনস্টিটিউট আয়োজিত ‘অগ্নিনিরাপত্তা ও জীবন সুরক্ষা নির্মিত ও নির্মিতব্য ভবনের জন্য করণীয়’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে তারা মানুষের জীবন রক্ষার জন্য দ্রুতই ঝুঁকিপূর্ণ ভবনগুলো না ভেঙে ঝুঁকিমুক্ত ও নিরাপদ করার পরামর্শ দিয়েছেন। সেই সঙ্গে যোগ্য পেশাজীবীদের দিয়ে যথাযথ উপায়ে ভবন নির্মাণ হচ্ছে কিনা তা তদারকি করানো এবং অগ্নিনিরাপত্তার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত সরকারি সংস্থাগুলোকে দুর্নীতিমুক্ত করার প্রস্তাবও দেন। সংবাদ সম্মেলনে নগর বিশেষজ্ঞরা বলেন, নির্মাণাধীন ভবনগুলোকে অকুপেনসি সার্টিফিকেট বা ব্যবহার সনদ ছাড়া পানি, বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ দেওয়া যাবে না। অগ্নিনিরাপত্তা ও জীবন সুরক্ষায় ভবন নির্মাণের ক্ষেত্রে নয়টি প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে স্থপতি ইনস্টিটিউটের পক্ষ থেকে। তাদের অভিযোগÑ রাজউক এলাকাসহ সারা দেশে স্থপতিদের স্বাক্ষর জাল করে নকশা অনুমোদনের বিষয়টি মহামারি আকার ধারণ করেছে। সংবাদ সম্মেলনে ঝুঁকিমুক্ত ভবন নির্মাণে রাজউক যথাযথ দায়িত্ব পালন করছে না বলে অভিযোগ করেছেন নগর বিশেষজ্ঞরা। ভবনের ইনটেরিয়র ডিজাইনে যেসব নির্মাণসামগ্রী ব্যবহার করা হয় তা ফায়ার রেটিংসম্পন্ন কিনা তা তদারকি করারও দাবি জানিয়েছেন তারা। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ভবন বৈধ বা অবৈধ কিনা তা বের করার আগে এসব ভবনে যারা বসবাস করেন তাদের বাঁচানোর ব্যবস্থা করতে হবে। ঢাকায় অন্তত ৪০ হাজার ভবন রয়েছে যা আইন ও বিধি মেনে নির্মিত হয়নি। এমন ভবনে যে লাখ লাখ মানুষ বসবাস করছে তাদের নিরাপত্তার ব্যাপারে ভাবতে হবে। ঢাকায় বড় ভূমিকম্প হলে মহানগরীতে আগুন ছড়িয়ে পড়তে পারে। গ্যাসলাইন বিস্ফোরণ ও বিদ্যুৎ লাইন থেকে স্পার্ক হলে ভয়াবহ বিপদ অনিবার্য হয়ে উঠতে পারে। সে বিপদ এড়াতে হলে ভবনগুলোর নিরাপত্তার দিকে নজর দিতে হবে। আগুন নেভানোর জন্য প্রতিটি ভবনে প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা থাকতে হবে। ভবন নির্মাণে বিল্ডিং কোড যাতে পরিপূর্ণভাবে মেনে চলা হয় এবং সব ধরনের নিরাপত্তাব্যবস্থা অনুসরণ করা হয় তা নিশ্চিত করতে হবে।


আপনার মন্তব্য